আমেরিকার তটে বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় হ্যারিকেন লউরার তান্ডব শুরু

।। স্বর্ণালী তালুকদার, প্রথম কলকাতা ।।

চতুর্থ পর্যায়ের বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় হ্যারিকেন লউরা আমেরিকার টেক্সাস এবং লুসিয়ানা প্রদেশে আছড়ে পড়তে চলেছে। ঘন্টায় ১৫০ মাইল বেগে হাওয়া বইবে এবং সমুদ্রে তীব্র জলোচ্ছাস দেখা যাবে। জাতীয় হ্যারিকেন কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, জলের স্রোতের উচ্চতা ২০ ফুট পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে। উপকূলবর্তী এলাকা জুড়ে দুই প্রদেশের আধিকারিকের তরফে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

এই ঘূর্ণিঝড়টি দশকের অন্যতম ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় বলে জানানো হয়েছে প্রশাসনের তরফে। ৪০ মাইল পর্যন্ত বাড়িঘরকে আছড়ে ফেলার ক্ষমতা রাখে এই ঘূর্ণিঝড়। প্রদেশের নিম্মবর্তী এলাকাগুলি ভারী বৃষ্টি এবং জলোচ্ছাসের কারণে জলমগ্ন হতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

টেক্সাস এবং লুসিয়ানা প্রদেশের উপকূলবর্তী এলাকা থেকে প্রায় ১৫ লক্ষ বাসিন্দাদের অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই কালকাসিউ প্যারিস এলাকায় ঝড় ঘন্টায় ৯৩ মাইল বেগে প্রবেশ করেছে। ট্রেনের মত আওয়াজ বিশিষ্ট এই ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

লেক চালর্স, জেনিংস, লাফায়েত্তে এবং নিউ আইবেরিয়াতে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস জানানো হয়েছে। সূত্রের খবর, বেশ কিছু এলাকায় জল জমে গিয়েছে এবং গাছ উপড়ে পড়েছে। এলাকায় ১০ হাজার মানুষ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছেন। কলোরাডো রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ফিলিপ ক্লোটজবাচ জানিয়েছেন, ইতিহাসে সর্বাধিক বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় লউরা আমেরিকার বুকে আছড়ে পড়েছে।