খেলার মাঠে শত্রুতা, মাঠের বাইরে সখ্যতা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।


গত আইএসএলে এটিকে-কে আইএসএল চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন। এবার এটিকের সাথে যুক্ত হয়েছে ভারতের ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহনবাগান । বেড়েছে উন্মাদনা, বেড়েছে সমর্থকদের আবেগ। তবে গতবারের সেই আত্মবিশ্বাস নিয়েই সপ্তম আইএসএল অভিযানে নেমেছিলেন এটিকে-মোহনবাগানের কোচ অ্যান্তোনিও লোপেজ হাবাস।

আর শুরুতেই করেছেন বাজিমাত। রয় কৃষ্ণার গোলে কেরালা ব্লাস্টার্সকে ১-০ গোলে হারিয়ে অভিযান শুরু করে এটিকে-মোহনবাগান । তবে প্রথম জয় নিয়ে তৃপ্ত থাকতে রাজি নন এটিকে-মোহনবাগানের কোচ। বরং এবার তাঁর ভাবনায় এখন ডার্বি। তাই তো ম্যাচ শেষ হতেই জানিয়ে দিলেন, কেরালা অতীত। এবার এসসি ইস্টবেঙ্গলকে নিয়ে ভাবনা শুরু।

কোভিড পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন স্তব্ধ ছিল খেলার ময়দান। মরুশহরে আইপিএল দিয়ে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে শুরু করে খেলার দুনিয়া। আর আইপিএল শেষ হতেই মরুভূমি থেকে ফোকাস সোজা এসে পৌঁছেছে সমুদ্রসৈকতে। গোয়ায় বসেছে আইএসএলের আসর। ময়দানের দুই প্রধান যুক্ত হওয়ায় টুর্নামেন্টের জৌলুসও বেড়েছে কয়েকগুণ।

তাই তো দুই দলের উপর প্রত্যাশার চাপ রয়েই গিয়েছে। ফলে উভয় পক্ষের প্রস্তুতি তুঙ্গে। এরই মধ্যে প্রথম ম্যাচ জিতে হাবাস বললেন, “আট মাস পর প্রতিযোগিতায় নামাটা খুব কঠিন চ্যালেঞ্জ ছিল। তবে এরপরও দলের মধ্যে দারুণ বোঝাপড়া ছিল। দলগত পারফরম্যান্সেই জয় এসেছে। কেরালাও খুব ভাল খেলেছে।

আরো পড়ুন : প্রস্তুতির অভাব, সমর্থকদের হতাশ করলো এটিকে-মোহনবাগান

কিন্তু আমার ছেলেদের খেলায় আমি খুব খুশি। এবার এসসি ইস্টবেঙ্গল নিয়ে ভাবনার পালা। সেই জন্য আমরা রোজ প্র্যাকটিস করছি। ২৭ নভেম্বর ডার্বি দিয়েই প্রথমবার আইএসএল অভিযান শুরু লাল-হলুদের । দীর্ঘ দড়ি টানাটানির পর টুর্নামেন্টে খেলা নিশ্চিত করেছে লাল-হলুদ। সমর্থকরাও আশায় বুক বেঁধেছে, যে ফুটবল মাঠের অতীত সাফল্য এই টুর্নামেন্টেও বজায় রাখবে ইস্টবেঙ্গল শিবির।

তবে শত্রুতা তো শুধু মাঠে। মাঠের বাইরে তাদের সখ্যতা অটুট । কোলকাতার তিন প্রধান মোহনবাগান, ইস্টবেঙ্গল ও মহামেডান। প্রথম দুই ক্লাব যেমন খেলছে আইএসএলে, তেমনই দীর্ঘদিন পর আই লিগে খেলবে মহামেডান স্পোর্টিং। তাই আইএসএলের শুরুতেই দুই ক্লাবকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে মহামেডান।

পালটা ট্যুইট করে মহামেডান ও এটিকে মোহনবাগানকে অভিনন্দন জানাতে ভোলেনি এস সি ইস্টবেঙ্গলও। হাজারো প্রতিযোগিতার মাঝেও এই ঐক্যই শেষপ্রহরে জিতিয়ে দেয় ফুটবলকে। উসকে দেয় বাঙালির সেই ফুটবল আবেগকে । সব খেলার সেরা বাঙালির তুমি ফুটবল ।

Categories