“ঈশ্বরের ক্রিয়া” কোভিডে জিএসটি-তে ঘাটতি: নির্মলা সীতারামণ

1 min read

।।সুদীপ মান্না, প্রথম কলকাতা।।

করোনাভাইরাস অতিমারীতে পণ্য ও পরিষেবা কর(জিএসটি) আদায়ে বিরূপ প্রভাব পড়েছে। ২০২১ আর্থিক বর্ষে ঘাটতি রয়েছে ২,৩৫ লাখ কোটি টাকার। বৃহস্পতিবার জানাল কেন্দ্রীয় সরকার। জিএসটি পরিষদের ৪১তম বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ বলেন, করোনাভাইরাস অতিমারী ছিল “ঈশ্বরের ক্রিয়া” এবং একটি অপ্রত্যাশিত কারণে জিএসটি আদায়ে বিরূপ প্রভাব পড়েছে।

“এই বছর আমরা অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি। আমরা মুখোমুখি হয়েছি একটি ঈশ্বরের ক্রিয়ার যেখানে আমরা এমনকী একটি সংকোচনও দেখতে পারি,” তিনি বলেন।অর্থমন্ত্রী জানান, ২০২০ অর্থবর্ষে রাজ্যগুলিকে জিএসটি ক্ষতিপূরণ বাবদ ১.৬৫ লাথ কোটি টাকার বন্দোবস্ত করেছে।
“রাজ্যগুলির সামনে দুটি বিকল্প রাখা হয়েছে। আমরা আরবিআই-এর মাধ্যমে সুবিধা দিতে পারি। রাজ্যগুলিকে ৭ দিন সময় দেওয়া হয়েছে। তারা জানালে আমরা জিএসটি নিয়ে ছোট বৈঠক করতে পারি।“ বলেন নির্মলা সীতারামণ।

বিরোধী শাসিত রাজ্যগুলি দাবি জানিয়েছে, তাদের প্রতি জিএসটি বকেয়া পরিশোধের বৈধ বাধ্যবাধকতা রয়েছে কেন্দ্রের। যদিও কেন্দ্রের পাল্টা দাবি, যদি কর আদায়ে ঘাটতি থাকে, তাহলে তাদের সেরকম কোনও বাধ্যবাধকতা নেই।