Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

গোর্খা অনুপ্রবেশকারী নয় অনুপ্রবেশকারী বাঙালি, দেবাংশুর পোস্টে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া

।। সুদীপা সরকার ।।

উত্তরবঙ্গে কালিম্পংয়ে প্রচারে গিয়ে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছিলেন তৃণমূল মিথ্যাচার চালাচ্ছে। এনআরসি করলে গোর্খাদের তাড়িয়ে দেওয়া হবে বলে তৃণমূল মিথ্যা কথা বলছে। তিনি জানান গোর্খাদের কোনো ক্ষতি হবে না। এনআরসি আসেনি আসবে। তবে গোর্খাদের কোনো রকম ভাবেই ক্ষতি হবে না বলে আশ্বাস দেন তিনি। এবার এই বিষয়ে নিজের ফেসবুক পেইজ একটি পোস্ট করেছেন দেবাংশু ভট্টাচার্য। তিনি লিখেছেন, গোর্খা অনুপ্রবেশকারী নয় ,অনুপ্রবেশকারী তুমি বাঙালী…! শুধু বাঙালীর জন্য এনআরসি হবে.. আসামের মত হিন্দু, মুসলিম নির্বিশেষে শুধু বাঙালীদের বেছে বেছে ডিটেনশন ক্যাম্পে কারাগারে বন্দী করবে দুই গুজরাটি ভাই।


বাঙালি তুমি যখন রক্ত ঝরিয়ে স্বাধীনতা দিলে, ওরা তখন দালালি করে গিয়েছিল ব্রিটিশের, আজ ওরা দেশের মাথা আর তুমি বিদেশী। তোমার আত্মহত্যা প্রশ্নের সামনে। তোমার দিকে সেদিন ব্রিটিশদের দালালি করা 2 গুজরাটি ভাইয়ের আঙ্গুল। আজ তোমায় খেলাচ্ছে তোমরা খেলছো! চার দফা বাকি আছে। ডিটেনশন ক্যাম্প বেছে নেওয়ার জন্য ভোট দেবেন নাকি মুক্ত বাতাসের জন্য। সিদ্ধান্ত আপনার শুভ বুদ্ধির উপর ছাড়লাম। প্রচুর কমেন্ট পড়েছে দেবাংশুর এই পোস্টটিতে। একজন লিখেছেন বাংলার মানুষের চিন্তা করার কিছু নেই।

বিজেপি ক্ষমতায় আসছে না হেরে গেছে ওরা। নবান্নে ফের সাদা শাড়ি নীল পার। আবার একজন লিখেছেন, বিজেপিকে কোনভাবেই বিশ্বাস করা যায় না।এই বাংলায় বিজেপিকে ভোট দিয়ে নিজেদের বিপদ ডেকে আনবেন না। আবার একজন দেবাংশুকে নিশানা নিয়ে লিখেছেন, এনআরসির ভয় দেখিয়ে উদ্বাস্তুদের যাদের বাঙাল বলা হয়ে থাকে, তাদের কাবু করতে বিজেপি অনেক সফল হয়েছে। ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে তার প্রমাণ পাওয়া গেছে। উত্তরবঙ্গে একচেটিয়া বাঙাল সবাই ভয় পেয়ে বিজেপিকে ভোট দিয়েছিল। আবার একজন লিখেছেন এক রাজ্যে দুই রকম কথা বলছেন। আবার একজন লিখেছেন শুধুমাত্র মুক্ত বাতাস দিয়ে পেটের ভাত হবে দাদা??

বেকারদের কর্মসংস্থানের কিভাবে হবে একজন লিখেছেন এই লোকটা মতুয়াদের কাছে গিয়ে বলছে এনআরসি হবে আর পাহাড়ে গিয়ে বলছে এনআরসি হবেনা। ধাপ্পাবাজ মোদি আর অমিত শাহ। আবার একজন প্রশ্ন তুলেছেন দিদি যখন এনআরসি দাবি করেছিলেন পার্লামেন্ট ভবনে তখন আপনারা কোথায় ছিলেন। সব মিলিয়ে একুশের নির্বাচনে বাংলার রাজনীতিতে ফের উঠে আসছে এনআরসি ইস্যু। দেবাংশুর এই পোস্ট ঘিরে শোরগোল শুরু হয়েছে বাংলা রাজনীতিতে।