Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

হুইল চেয়ার ছেড়ে মমতা কবে উঠে দাঁড়াবেন তা চিকিৎসকদের তোয়াক্কা না করে উত্তর দিলীপের

।। ময়ুখ বসু ।।


রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কবে হুইল চেয়ার ছেড়ে নিজের পায়ে উঠে দাঁড়াবেন? উত্তরটা চিকিৎসকদের থেকেও অনেক বেশি করে নিশ্চিত করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, নির্বাচন শেষ হলেই হুইল চেয়ার থেকে উঠে দাঁড়াবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক মহলের মতে, আসলে ভোটের ময়দানে হুইল চেয়ারে বসে ভাঙা পা দেখিয়ে তিনি মানুষের সহানুভূতি নিতে চাইছেন এমনটাই এই বক্তব্যের মাধ্যমে ইঙ্গিত দিয়ে হয়তো বুঝিয়ে দিতে চাইছেন দিলীপ ঘোষ।

দিলীপ ঘোষ বলেন, বিজেপি চায়, দিদি নিজের পায়ে দাঁড়িয়েই ভোটে লড়াই করুন। তিনি হুইল চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়ান। তবে দিদি হুইল চেয়ারে বসে থাকলেও এবারের ভোটে এই হুইল চেয়ার কোনও ইস্যু হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি। দিলীপ ঘোষ জোরের সঙ্গেই বলেন, ভোট শেষ হলেই উঠে দাঁড়াবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে আগামী ২ মের পর তাঁর আর বসার চেয়ারটাই থাকবে না। তখন দাঁড়িয়েই থাকতে হবে। অবশ্য এরা আগেও দিলীপ ঘোষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হুইল চেয়ার এবং পায়ে আঘাত নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন।

আরো পড়ুন : নিচু স্তরের কথাবার্তার জন্য বাবুলকে সম্মান করি না, টালিগঞ্জ থেকে আক্রমণ মমতার

তিনি বলেছিলেন, শাড়ি হলো নারীদের শালীনতার প্রতীক। কিন্তু শাড়ি পরে তিনি পা দেখিয়ে যাবেন সেটা ঠিক নয়। পা দেখাতে চাইলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শাড়ি নয়, বারমুডা পরা উচিত বলেও মন্তব্য করেছিলেন তিনি। যা নিয়ে সেই সময় তুমুল বিতর্ক দেখা দেয়।

উল্লেখ্য, গত ১০ মার্চ হলদিয়ায় মনোনয়ন পেশ করে নন্দীগ্রামে ফিরে এসে সেখানে সন্ধ্যায় স্থানীয় বিরুলিয়া বাজারে নিজের গাড়ির দরজায় ভিড়ের চাপে পায়ে ও ঘাড়ে আঘাত পান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময় তিনি ওই ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছিলেন।

পায়ে আঘাত লাগার পরেই তাঁকে কলকাতায় নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার দুই দিন পর তিনি বাড়ি ফিরে যান। আর তারপর থেকেই হুইল চেয়ারে করে ভোট প্রচার শুরু করেন তিনি। তবে ভাঙা পা নিয়েই মমতা বলেন, এক পায়ে বাংলা দখল করবেন তিনি এবং দুই পায়ে দিল্লি দখল করবেন। তবে এরইমধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভাঙা পায়ে জাতীয় সঙ্গীত চলার সময় উঠে দাঁড়াতে দেখা যায়। এছাড়াও নন্দীগ্রামে দলীয় পার্টি অফিসে তাঁকে ভাঙা পা দোলাতেও দেখা যায়। যা নিয়েও বিতর্ক দানা বাঁধে।

পিসিসি