আপনি কি রোজ দই খান? তবে আপনি বেঁচে যাচ্ছেন…

।। স্বর্ণালী তালুকদার, প্রথম কলকাতা।।

মানুষের দুশ্চিন্তা বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে। কখনও কাজের অতিরিক্ত চাপের জন্য, কখনও পারিবারিক সমস্যার জন্য, আবার কখনও অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছোতে না পারার ব্যর্থতার জন্য। এই দুশ্চিন্তা কমানোর জন্য বিভিন্ন ধরণের পন্থা অবলম্বন করে থাকেন সবাই। তবে খুব সহজেই দুশ্চিন্তার ক্ষতিকর প্রভাব কমানো যেতে পারে, যদি ঘরে থাকে দই।

সম্প্রতি এক গবেষনায় জানা গিয়েছে, দইয়ে থাকা প্রোবায়োটিক শুধুমাত্র অন্ত্রের মাইক্রবায়োটা ব্যাকটেরিয়ার উপর নিয়ন্ত্রণ রাখে না, মস্তিকের কার্যকারিতার উপরও সমানভাবে প্রভাব ফেলে। ফলতঃ দুশ্চিন্তা, উদ্বেগের মতো সমস্যা কমাতে সক্ষম হয় দই। সাংহাইয়ের জিয়াও তং বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অব মেডিসিনের গবেষকেরা জানিয়েছেন, অন্ত্রের মাইক্রবায়োটা মস্তিস্কের কার্যক্ষমতা নিয়ন্ত্রনে সক্ষম।

গবেষকেরা ২১ টি গবেষণা পত্র তৈরী করেছিলেন, যা ১,৫০৩ জন মানুষের উপর পরীক্ষা করার পর লেখা হয়েছিল। ওই ২১ টি গবেষণাপত্রের ১১টি গবেষনা পত্রে দেখা গিয়েছে , অন্ত্রে উৎপন্ন মাইক্রবায়োটা দুশ্চিন্তার সমস্ত উপসর্গের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে সক্ষম হয়েছে। দইয়ে প্রোবায়েটিকের পরিমাণ বহুল পরিমানে থাকায় এই খাদ্যটি দুশ্চিন্তার ক্ষতিকর প্রভাব থেকে মুক্তি দিতে পারে বলে মনে করছেন গবেষকেরা।