সরেজমিনে বিহার ঘুরে জোট শান্তি ধরে রাখতে চান দেবেন্দ্র ফড়নবীশ

1 min read


।। ময়ুখ বসু ।।


বিহার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি জয় পেতে এবার রীতিমতো রাজনৈতিক বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ করলো। এবারে মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশকে বিহারের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে নিযুক্ত করলো বিজেপি। ফড়নবীশের হাত ধরেই বিহারে কংগ্রেস এবং আরজেডি জোটের মোকাবিলা করতে চাইছে বিজেপি। উল্লেখ্য, বিহারে আগামী ২৮ অক্টোবর, ৩ নভেম্বর এবং ৭ নভেম্বর মোট তিন দফায় বিধানসভা নির্বাচন হবে।

ভোট গননা হবে আগামী ১০ নভেম্বর। গতকাল বুধবার দেবেন্দ্র ফড়নবীশ বিহার নির্বাচনের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই মূলত প্রধান জোট সঙ্গী নীতিশ কুমারের সঙ্গে জোটের আসন ভাগাভাগি নিয়ে আলোচনার প্রক্রিয়াও শুরু করে দিয়েছেন। মূলত এবার বিহারে নীতিশ-বিজেপি জোটকে লড়াই করতে হবে বিহারে কংগ্রেস-আরজেডি মহাজোটের বিরুদ্ধে। ফলে মহাজোটের বিরুদ্ধে লড়াইকে মোটেই হাল্কা করে নিতে রাজি নয় বিজেপি।

এদিকে বিহারে আসন সমঝোতা নিয়ে সম্মানজনক আসনের বরাদ্দ না হলে এলজেপি জেডিইউ-এর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্ধী দাড় করানোর হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে জোটের অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি। সেক্ষেত্রে দাঁড়িয়ে বিহারের উপ মুখ্যমন্ত্রী সুশীল মোদি যেমন দিল্লি ছুটে গিয়েছেন, তেমনি দেবেন্দ্র ফড়নবীশ জোট দলগুলির সঙ্গে ইতিবাচক আলোচনার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছেন। আসলে বিহারের মাটিতে মূলত নীতিশ কুমারকে সামনে রেখে রণনীতি ঠিক করতে চাইছে বিজেপি।

আরও পড়ুন : সর্বনাশেই পৌষ মাস ! বিহার নির্বাচনে বিজেপির উইনিং ফ্যাক্টর ‘করোনা’ !

তবে জেডিইউ এবং বিজেপির মধ্যে সম আসন বন্টনের জন্য চাপ রয়েছে বিহারের দুই দলেরই রাজনৈতিক কর্মীদের তরফে। জেডিইউ দাবি জানিয়েছে, দলের অন্যান্য জোট শরীকদের থেকে তাদের অন্তত কিছু আসন বেশি পাওয়া উচিত। এই অবস্থার মধ্যে দাঁড়িয়ে বিহারে জোট রাজনীতিতে শান্তির বাতাবরন ধরে রাখতে দেবেন্দ্র ফড়নবীশের মতো পোড় খাওয়া রাজনীতিকের উপরেই ভরসা রেখেছে গেরুয়া শিবির। তবে বিহারে বিজেপির জোট সঙ্গী রাজনৈতিক দলগুলির তৃণমূল স্তর থেকে দাবি উঠেছে বিজেপিকে ১০৫ টি আসন, জেডিইউকে ১১০ টি আসন এবং বাদবাকি আসন এইচএএম এবং এলজেপির মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হোক।

এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে বিহার বিজেপির সাংগাঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত এবং দলের সাধারন সম্পাদক ভুপেন্দ্র যাদব এবং দেবেন্দ্র ফড়নবীশকে সামনে রেখে বিহার জয়ের ছক ক্ষেছে বিজেপি। বিজেপির দলীয় সুত্রে খবর, বিজেপি চাইছে, জোট সঙ্গীদের মধ্যে সমস্ত ক্ষোভ বিক্ষোভকে মিটিয়ে দিয়ে কাঁধে কাঁধ রেখে লড়াই করতে। সেক্ষেত্রে দেবেন্দ্র ফড়নবীশ দায়িত্ব পাওয়ার পরেই আভাস দিয়েছেন, বিহারের কোন আসনে কোন রাজনৈতিক দল উপযুক্ত তা সরেজমিনে দেখেই সিদ্ধান্ত নিতে চান তিনি।