কান্না চিকিৎসক বাবার, ভিডিও দেখে চোখে জল সকলের

।। শর্মিলা মিত্র ।।

বাচ্চাকে আদর করতে না পেরে কান্নায় ভেঙে পড়লেন চিকিৎসক বাবা। ছেলেকে কাছে আসতে বারণ করে মাটিতে বসেই কেঁদে ফেললেন তিনি।এই ভিডিও দেখে কান্না আটকাতে পারছেন না কেউই।

দেশে প্রতিদিন বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। দেশের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যেও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এখনও সঠিক চিকিৎসা যেমন খুঁজে পাওয়া যায়নি, তেমনই , করোনার প্রতিষেধক নিয়েও চলছে নানান গবেষণা। কবে সব পরিস্থিতি আবার আগের মতো হবে কেউ জানেনা। দিনের পর দিন ঘরে বন্দি সকলে। নিজেদের প্রিয়জনদের কাছেও যেতে পারছেন না মানুষ।

আর এই পরিস্থিতিতে সামনের সারিতে থেকে করোনার সঙ্গে লড়াই করছেন ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থকর্মীরা। দিনের পর দিন নিজেদের পরিবারের কাছ থেকে দূরে থেকে মানুষের সেবা করে চলেছেন তারা।
চিকিৎসা করাতে করাতে এই ভাইরাসে নিজেরাও আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন তারা।

আর এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যা দেখে চোখে জল ধরে রাখতে পারছেন না কেউই।এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, করোনা রোগীদের চিকিৎসা করার জন্য পরিবার থেকে দূরে থাকতে হচ্ছে চিকিৎসককে।

বহুদিন পর তিনি যখন বাড়ি ফিরছেন তখন তাকে দেখে তার কাছে ছুটে যাচ্ছে তার বছর দুয়েকের ছেলে, কিন্তু ছেলেকে কাছে আসতে বারন করে নিজেই মাটিতে বসে কান্নায় ভেঙে পড়ছেন ওই চিকিৎসক।

ই ভিডিওটি নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে শেয়ার করে অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী লেখেন, এই ডক্টর বাবা করোনা রোগীর চিকিৎসা করছেন। বাড়ি ফিরে নিজের বাচ্চাকেও জড়িয়ে ধরতে পারছেন না তিনি। আমার কান্না পাচ্ছে। করোনা দয়া করে চলে যাও। এই সব ছবি, ঘটনা আর সহ্য করা যাচ্ছে না।শেয়ার করার পর মূহুর্তে ভাইরাল হয় ঋতাভরী চক্রবর্তী এই ভিডিওটি।