Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মেলা নিয়ে দড়ি টানাটানি ঠাকুরবাড়ির দুই শরিকের, বিভ্রান্ত মতুয়ারা

1 min read

।। বাপি মণ্ডল ।।

মতুয়া মেলা নিয়ে দড়ি টানাটানি ঠাকুরবাড়ির দুই শরিকের। মঙ্গলবার মেলা বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করেছেন মমতাবালা ঠাকুর। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর বিরুদ্ধে পালটা তোপ দাগলেন শান্তনু ঠাকুর। বললেন, ‘নিজের স্বার্থ চরিতার্থ করতে মেলা বন্ধ করছে মমতা ঠাকুর। মেলা হবেই।’

এদিন ঠাকুরবাড়িতে সাংবাদিক বৈঠক করে শান্তনু আরও বলেন, ‘গত দু’বছর মেলা বন্ধ ছিল। সে সময় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে দোকান করার জন্য টাকা নিয়েছিলেন মমতা ঠাকুর। সেই টাকা ফেরত দেয়ার কথা ছিল। টাকা ফেরত দেবেন না বলেই এখন তিনি মেলা বন্ধের কথা বলছেন। নিজের স্বার্থ চরিতার্থ করতে তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’ তারপরই শান্তনুর প্রত্যয়ী ঘোষণা, ‘মেলা হবেই।

আরো পড়ুন : সভা থেকে ফেরার পথে দিলীপ ঘোষের গাড়িতে হামলা, হেলমেট পড়ে রক্ষে!

মেলা মতুয়া ভক্তদের। কারও ব্যক্তিগত সম্পত্তি নয়। ঠাকুরবাড়িতে আরও অনেক সদস্য রয়েছেন। মমতা ঠাকুর মেলা বন্ধের ঘোষণা করার কে? মেলায় কাউকে আসতে বলব না। যেতেও বলব না। মতুয়া ভক্তরা মনে হলে আসবেন। মনে না হলে হলে আসবেন না৷ মেলা হবে। সরকারের ক্ষমতা থাকলে এসে বন্ধ করুক।’

আবার শান্তনুর বক্তব্যের সমালোচনা করে মমতাবালা ঠাকুর বলেন, ‘ওরা টাকা ছাড়া কিছু বোঝে না৷ টাকার জন্যই ওরা মেলা চাইছে। ২০১৯ ও ২০২০ সালে দোকানদারের কাছ থেকে টাকা নিয়েছিল শান্তনুর সংগঠন। করোনার কারণে এবার আমি মেলা বন্ধের কথা ঘোষণা করেছি। তারপরও যদি মেলা হয়, সেটা যারা করবে তাদের দায়িত্ব। বীণাপাণি দেবীর মৃত্যুর আগে আমাকেই মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি ঘোষণাপত্র করে গিয়েছিলেন।’

ঠাকুরবাড়ির দুই শরিকের দু’রকম বক্তব্যে বিভ্রান্ত মতুয়া ভক্তরা। বিভ্রান্ত মেলার মাঠে দোকান করতে আসা ব্যবসায়ীরাও। তাঁদের বক্তব্য, ‘আমরা দূরদূরান্ত থেকে অনেক টাকা খরচ করে এখানে এসেছি। মেলা না-হলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলন শুরু করব। প্রয়োজনে অবরোধ করব৷’