বচসা থামাতে গিয়ে খুন সিভিক ভলেন্টিয়ার

।। প্রথম কলকাতা ।।

শনিবার রাতে ময়দান থানা এলাকায় মাজারের পাশে ঝোপের মধ্যে এক সিভিক ভলেন্টিয়ারের রক্তাত্ব দেহ উদ্ধার হলো। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিন জনকে পুলিশ আটক করেছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

জানা গেছে, ওই সিভিক ভিলেন্টিয়ার ময়দান থানায় কর্মরত ছিলেন। পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত যুবকের নাম সানি বয়স ৩০। বাড়ি খিদিরপুরে। সিভিক ভলান্টিয়ারের কাজ করার পাশাপাশি তিনি ঘোড়ার ব্যবসাও করতেন। শুক্রবার সানির থানায় ডিউটি ছিল না। ঘোড়াকে খাবার দিতে যাচ্ছেন বলে বাড়ি থেকে এদিন বেরিয়েছিলেন। দীর্ঘক্ষণ কেটে গেলেও বাড়ি না ফেরেননি সানি। এরপর বাড়ির লোকেরা খোঁজ খবর নিতে শুরু করেন। খোঁজ নিতেই ময়দান থানা এলাকাতেই মাজারের পাশের ঝোপের মধ্যে থেকে তাঁর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়।

স্থানীয় সূত্রে খবর,  যেখানে ওই যুবকের দেহ পাওয়া গিয়েছে, সেখানে শুক্রবার রাতে ওই একই জায়গায় একদল যুবককে মদ্যপান করতে দেখা যায়। সেই সময় ওই যুবকদের মধ্যে বচসাও হয় বলে জানান স্থানীয়রা। সেই বচসা থামাতেই যান ওই সিভিক ভলান্টিয়ার। তখনই ওই সিভিক ভলেন্টিযয়ারের মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করা হয়। পরে সেই ইট দিয়েই মাথা থেঁতলে দেওয়া হয়।

ঘটনাস্থলেই ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার মারা যান। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। কেনো খুন করা হলো তাকে। শুধুই কী বচসা নাকি এই খুনের পিছনে অন্য কোনো কারণ আছে সবটাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ধীতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।.