Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ফের চোখরাঙানি তৃণমূলকে, হাজরা’র পর শ্যামবাজার, ‘দাদা’ময় রাজ্য!

1 min read

।। কুমার মিত্র ।।

দাদা-দিদির লড়াই তুঙ্গে। বহুদিন ধরেই দাদা অর্থাৎ শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামীরা সরাসরি চ্যালেঞ্জ করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসকে। যে বিষয়টি নিয়ে এখন আলোড়ন পড়ে গিয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। পূর্ব মেদিনীপুরের পাশাপাশি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় শুভেন্দুর ছবিসহ ব্যানার, পোস্টার বহুদিন ধরে দেখা যাচ্ছে।

তাতে লেখা আমরা দাদার অনুগামী। কোথাও আবার লেখা দাদা তুমি এগিয়ে চলো, আমরা তোমার সাথে আছি। ফের একবার সেই পোস্টার দেখা গেল খাস কলকাতার অন্যতম প্রাণকেন্দ্র শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়ে। দিন কয়েক আগেই তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাসতালুক হাজরা মোড়ে শুভেন্দুর ছবিসহ একইভাবে ব্যানার দেখা গিয়েছিল। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই সবার নজরে এখন শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়।

যত দিন যাচ্ছে ততই শুভেন্দু পর্ব নিত্যনতুন দিকে মোড় নিচ্ছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। গত বৃহস্পতিবার রামনগরে সমবায় মঞ্চের সভা থেকে শুভেন্দু যে বক্তব্য রেখেছিলেন সেখানে তাঁর মুখে মুখ্যমন্ত্রী কথাটা শোনা গিয়েছিল। এমনকি এও বলেছিলেন আমি এখনো রাজ্য মন্ত্রিসভার সদস্য,আর একটি দলের সক্রিয় সদস্যা।

তাতে তৃণমূল শিবির আশান্বিত হয়েছিল এই ভেবে যে শুভেন্দু তাহলে আর দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে কোনো মন্তব্য করবেন না। কিন্তু মনে রাখতে হবে শুভেন্দু সেই সভায় বলেছিলেন আমি যতক্ষণ পর্যন্ত দলে বা মন্ত্রিসভায় আছি, আমি রাজনীতির কথা বলতে পারি না অরাজনৈতিক মঞ্চ থেকে। আর শুভ্যেন্দুর বক্তব্যে ওই যতক্ষণ শব্দটিকে নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ায় তৃণমূলের অন্দরে।

আরো পড়ুন : শোভনকে সক্রিয় করার ইঙ্গিত, শোভন-বৈশাখীর সঙ্গে সাক্ষাৎ অরবিন্দ-অমিতাভর !


গতকাল হুগলির শেরপুরে একটি অরাজনৈতিক সভা থেকেও শুভেন্দু নাম না করে তৃণমূল সাংসদ তথা হুগলির পর্যবেক্ষক কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেছেন। বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি তাঁর মতো করেই রাজনীতিটা করে যাবেন। আর শনিবার সকালেই বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং বলেছেন শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে আসবেন এবং তিনি তৃণমূল ছাড়লে সরকার পড়ে যাবে।

আর এদিনই দেখা গেল শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়ে শুভেন্দুর ছবিসহ ব্যানার। এতদিন জেলায় জেলায় শুভেন্দুর সমর্থনে যেভাবে ব্যানার-পোস্টার পড়ছিল তাতে উদ্বেগ বেড়েছিল তৃণমূলের। কিন্তু খাস কলকাতায় যখন উত্তর থেকে দক্ষিণ জুড়ে শুভেন্দুর ছবিসহ ব্যানার-পোস্টার পড়ছে তাতে নেতৃত্ব বুঝে গেছে শুভেন্দু অনুগামীরা এবার সরাসরি চ্যালেঞ্জ করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর সরকারকে।

টিম শুভেন্দু অর্থাৎ ‘দাদা’র অনুগামীরা যেভাবে শহর থেকে জেলায় জেলায় এভাবে বিদ্রোহ করছেন তাতে প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছে জোড়াফুল শিবির। কলকাতার পাশাপাশি শহরতলিতেও একইভাবে শুভেন্দুর সমর্থনে ব্যানার দেখা যাচ্ছে। এর শেষ কোথায়? স্বাভাবিকভাবেই উঠছে সেই প্রশ্ন। যা নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে নারাজ তৃণমূল নেতৃত্ব।