বাংলাদেশে চীনের বিনিয়োগ: ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কে দূরত্ব আনার চেষ্টা?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা  ।।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আশাপ্রকাশ করেছেন, চীনা বিনিয়োগকারীরা বাংলাদশে আরও বিনিয়োগ করবেন।

বাংলাদেশ ও চীনের উন্নয়ন ও বাণিজ্য-সম্পর্ক নিয়ে আয়োজিত অনলাইন সেমিনারে প্রতিমন্ত্রী আহ্বান জানান, বাংলাদেশি পণ্যের চীনে শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকারের সুবিধা নেওয়ার জন্য। তিনি বলেন, চীনে বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকারের সুবিধা দেওয়াটা খুবই ইতিবাচক। চীন বাংলাদেশে বিনিয়োগও বাড়িয়েছে। বাংলাদেশ ও চীন বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যেতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এখানেই প্রশ্ন উঠেছে, বাংলাদেশ ও চীনের এই কাছাকাছি আসা বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কে কোনও প্রভাব ফেলবে কি না।

ভারতে পুর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় গত কয়েক মাস ধরে চলে আসা ভারত-চীন সংঘাতের প্রেক্ষিতে এই প্রশ্ন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেননা চীন চেষ্টা করছে প্রতিবেশী দেশগুলির সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক যাতে বন্ধুত্বপূর্ণ না থাকে। পাকিস্তানকে বিবিধ সুযোগ-সুবিধা দিয়ে আগেই নিজের কাছে ডেকে নিয়েছে চীন। বর্তমানে ভারত-পাক সম্পর্কও তলানিতে এসে ঠেকেছে। সম্প্রতি নেপালকেও কাছে টানার চেষ্টা করছে চীন। ভারতের সঙ্গে নেপালের সম্পর্কেও তার কিছুটা প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। একমাত্র বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কেই কোনও চিড় ধরাতে পারেনি চীন। বাংলাদেশের জন্ম লগ্ন খেকেই ভারতের সবচেয়ে কাছে্র বন্ধু বাংলাদেশ। বিপদে-আপদে, দুর্যোগে সর্বদা বাংলাদেশের পাশে থেকেছে ভারত। দুদেশের সরকারে যে দলই থাকুক না কেন, সম্পর্কে কখনও চিড় ধরেনি। দুটি দেশই পরষ্পরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেছে।

আরও পড়ুন: ফের ভারতীয়দের জন্য বাংলাদেশের ভিসা দেওয়া শুরু

চীন এখন বিভিন্ন বাণিজ্যিক সুযোগ-সুবিধা দিয়ে বাংলাদেশকে কাছে টানতে চাইলেও ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কে কোনও দূরত্ব আসার কোনও সম্ভাবনাই নেই। ভারত ও বাংলাদেশের পরীক্ষিত এত দিনের সম্পর্কের ওপর চীনের অভিসন্ধি কোনও কালো ছায়া ফেলতে পারবে না বলেই কূটনীতিক মহলের মত।

Categories