করোনা কালে দূর্গা বন্দনায় মাতছে গ্রাম বাংলা

।।প্রথম কলকাতা।।

শরতের আকাশে পেঁজা তুলো উমার আগমনের আভাস দেয়। সপরিবার উমাকে স্বাগত জানাতে কোমর বাঁধতেন আট থেকে আশি – সবাই। বাতাসে ভেসে আসে আগমনীর গান ,কিন্তু এইবছর করোনার দাপটে হারিয়েছে সবই। বর্তমান পরিস্থিতির করাল গ্রাসে প্রকৃতি আজ বিষন্ন। গ্রাম বাংলা কি পারবে আদৌ শারদোৎসবে মেতে উঠতে সেই চিন্তার ছায়া ফেলছে এই আনন্দের মুহূর্তে। ঝাড়গ্রামের বেলপাহাড়িতে এসব নিয়েই শুরু হয়েছে দুর্গাপুজোর প্রস্তুতি।

বাঙালির প্রিয় উৎসব শারদ উৎসবে জঙ্গলমহলের মানুষরা পাঁচ দিন ধরে মেতে থাকেন ধামসা, মাদলের তালে। ঝাড়গ্রামের বেলপাহাড়ির সোন্দাপাড়া অঞ্চলের কেন্দাপাড়া সর্বজনীন দুর্গাপুজা গত দু’বছর ধরে আশেপাশের গ্রামের মানুষের মূল আকর্ষণ হয়ে উঠেছে। তবে করোনা সেই উৎসাহে তেমন ভাঁটা ফেলতে পারে নি। গ্রামের মধ্যেই শুরু হয়েছে প্রতিমা গড়ার প্রস্তুতি। খড়, মাটির লেপন দিয়ে ধীরে ধীরে তৈরী হচ্ছে মৃন্ময়ী। করোনার আতঙ্ককে দূরে সরিয়ে গ্রামের কচিকাঁচাদের আনন্দ যেন উপচে পড়ছে। প্রতিমা তৈরির স্থানে গ্রামের শিশুরা এক বিস্ময়ভরা চোখে দেখে চলেছে দশভুজার রূপদান।করোনা কাটিয়ে গ্রাম বাংলার মানুষ তাদের প্রিয় উমাকে বরণ করে নিতে প্রস্তুত হচ্ছে।