Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রীর মাস্টার স্ট্রোক, স্বাস্থ্যসাথীর আওতায় গোটা বাংলা

।। প্রথম কলকাতা ।।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে মাস্টার স্ট্রোক দিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতদিন বিজেপি অভিযোগ করে এসেছে কেন্দ্রের আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গ সরকার রুপায়ণ করছে না। সেখানে রাজ্য সরকারের বক্তব্য ছিল স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের আওতায় রয়েছে রাজ্যের সাড়ে সাত কোটি মানুষ।

এবার সেই সংখ্যা আরও আড়াই কোটি বাড়িয়ে দিল রাজ্য সরকার। অর্থাৎ রাজ্যের ১০ কোটি মানুষ প্রত্যেকে এখন থেকে চলে এলেন স্বাস্থ্যসাথীর আওতায়। এতে যে কোনো বেসরকারি হাসপাতালে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্যাশলেস চিকিৎসার সাহায্য পাবেন রাজ্যবাসী। উল্লেখ্য এতদিন পিছিয়ে পড়া গরিব পরিবারের মানুষজন স্বাস্থ্য সাথীর আওতায় ছিলেন।

কিন্তু বর্তমানে চিকিৎসার যেভাবে খরচ বেড়েছে তাতে মধ্যবিত্ত পরিবার চরম অসুবিধার মধ্যে পড়ছেন। সেই বিষয়টি নিয়েই বিজেপি এতদিন রাজ্যের তৃণমূল সরকার কে আক্রমণ করে এসেছে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার যেভাবে স্বাস্থ্য সাথীর দরজা গোটা বাংলার প্রতিটি মানুষের জন্য খুলে দিল, তাতে বিজেপি যে অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে গেল তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

বহু মানুষ ব্যক্তিগতভাবে চিকিৎসা বিমা করান। কিন্তু সেই বীমার প্রিমিয়াম আগের তুলনায় প্রচুর বেড়ে গিয়েছে। করোনাকালে তাই সেই প্রিমিয়াম অনেকেই দিতে পারেননি। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে সবার জন্য স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের দরজা খুলে দিলেন তাতে সকলেই যে উপকৃত হবেন তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

আরো পড়ুন :ইস্যু সমর্থন করি, বনধ নয় মন্ত্রীর জবাব

স্বাস্থ্যের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর এই ভাবনা যে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে রইল বিধানসভা নির্বাচনের আগে তা পরিষ্কার। রাজ্যের প্রতিটি মানুষ যাতে দ্রুত স্বাস্থ্য সাথী কার্ড পান সেই কাজ দ্রুত শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে। এর ফলে শহরের যে কোনো নার্সিংহোমে বাংলার মানুষ নিখরচায় চিকিৎসা করাতে পারবেন ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।