Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আপনার মুখ দুর্গন্ধ? সতর্ক হয়ে যান এখনই

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

মুখ বা নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ। এই সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। এই কারনে অনেকেই বিব্রত বোধ করেন অন্যদের সঙ্গে মেলামেশা করতে বা সামনাসামনি কথা বলতে। কিন্তু কেন হয় এই মুখের দুর্গন্ধ ? জানেন কী কীসের ইঙ্গিত দেয় এই মুখের বা নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ ? জানা যায়, এই সমস্যার মধ্যে নিহিত থাকে বেশ কিছু শারীরিক সমস্যার ইঙ্গিত। আর যেগুলির কারণেই দেখা দিতে পারে মুখে বা নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ।

অ্যাসিডিটি : জানা যায়, অ্যাসিডিটির কারণে মুখে বা নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দেখা দিতে পারে। দীর্ঘদিনের অ্যাসিডিটির সমস্যা বদহজমের একটি লক্ষণ। এরকম অবস্থায় কোনও ডাক্তারের পরামর্শ না নিয়ে অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করলে লাভের চেয়ে আরও বেশি হতে পারে ক্ষতি।

আরো পড়ুন :ডিমের কুসুম আপনার শরীরের জন্য কতটা উপকারী এখনই জানুন

ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া : অনেক সময়েই মুখ গহ্বরের ভিতরে থাকা ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়ার কারণেও দেখা দেয় এই মুখের বা নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ। এইসব ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া যে শুধুমাত্র মুখের স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটায়, তা-ই নয়। এই সব ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়ার ফলে ব্যাহত হয় হজমের প্রক্রিয়াও। ফলে ক্ষতি হয় গোটা শরীরেরই।

ডায়াবেটিস : মুখের দুর্গন্ধ অনেক ক্ষেত্রেই ডায়াবেটিসেরও লক্ষণ বহন করে বলে জানা যায়। তাই, দীর্ঘদিন ধরে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধের সমস্যায় ভুগলে আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত কি না, তা জানতে পরীক্ষা করে দেখাও কিন্তু প্রয়োজন বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ডিহাইড্রেশন : শরীরে পর্যাপ্ত জলের অভাব ঘটলেও দেখা দিতে পারে মুখের বা নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধের সমস্যা। এবং মনে রাখবেন, এসব ক্ষেত্রে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার একমাত্র উপায় হল পর্যাপ্ত পরিমাণে জল খাওয়া। কফি, কোল্ড ড্রিংক বা সোডা কখনওই জলের বিকল্প হিসেবে কাজ করতে পারে না বলেও মত বিশেষজ্ঞদের।

লিভারের সমস্যা : লিভারের নানাবিধ রোগে মুখে টক একটা স্বাদ অনুভূত হয়। যেটাও কারন হতে পারে মুখের বা নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধের সমস্যার।

কিডনির সমস্যা : কোনও কোনও কিডনির রোগে মুখের অভ্যন্তর শুকিয়ে যায়। এর ফলেও নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দেখা দিতে পারে বলে মত
বিশেষজ্ঞদের।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে হলে যা করবেন: খাওয়ার পর কুলকুচি করে মুখ ধোওয়া,
দিনে দুবার দাঁত ব্রাশ করা,দাঁত ব্রাশ করার পর জিভ পরিস্কার করা, দাঁত মাজার আধঘন্টা আগে বা পরে অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল মাউথ ওয়াশ দিয়ে মুখ ধোওয়াও হল কার্যকরী উপায় বলে মত বিশেষজ্ঞদের।