বৈদ্যুতিক বাইকের নতুন সংযোজন অ্যাটাম

1 min read

।। স্বর্ণালী তালুকদার ।। কলকাতা ।।

তেলেঙ্গানার একটি অটোমাবাইল কোম্পানি গ্রিনফিল্ডের ইঞ্জিনিয়ারদের মস্তিস্কপ্রসূত এই অভিনব দ্বিচক্র যানটি আসছে ভারতের বাজারে খুব শিগগিরই। সম্পূর্ণরূপে বিদ্যুতের সাহায্যে চলবে এই বাইক। এই বিশেষ বাইকটির বার্ষিক উৎপাদন ক্ষমতা ১৫,০০০ ইউনিট এবং অতিরিক্ত আরও ১০,০০০ ইউনিট পর্যন্ত বাড়ানো যেতে পারে। অ্যাটাম ১.০ স্বয়ংচালিত প্রযুক্তির আন্তর্জাতিক কেন্দ্র অনুমোদিত ধীর গতির বৈদ্যুতিক দ্বি চক্র যান।

এই বাইকটি সর্বাধিক ২৫ কিমি প্রতি ঘন্টা পর্যন্ত চলতে সক্ষম। এই বিশেষ বাইকটি চালানোর জন্য কোন তথ্য নথিভুক্তকরণ বা রেজিস্ট্রেশন করতে হবে না। এই বাইকটিতে একটি বহনযোগ্য লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি রয়েছে, এটি ৪ ঘন্টারও কম সময়ে চার্জ হয়ে যায়। একবার চার্জে ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে পারে। করোনা পরিস্থিতি সাশ্রয়ী দ্বিচক্র যান হিসেবে এই বাইক কিন্তু যুবসমাজদের পছন্দের হয়ে উঠছে।

বাইকটি দুইবছরের ওয়ারেন্টি সহ বিভিন্ন ধরণের রঙে উপলব্ধ রয়েছে। সাধারণ থ্রি-পিন সকেট ব্যবহার করে যে কোনও জায়গায় চার্জ দেওয়া সম্ভব। প্রতিবার চার্জের জন্য মাত্র ১ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হবে বলে জানিয়েছে নির্মাতা সংস্থা। বাইকটিতে ২০X৪ ফ্যাট বাইকের টায়ার দেওয়া হয়েছে, কম উচ্চতার আরামদায়ক সিট, এলইডি লাইট, ইন্ডিকেটর এবং টাইলাইট সহ একটি ডিজিটাল ডিসপ্লে রাখা হয়েছে। 

তিন বছর ধরে এই বাইকটি তৈরী করা হয়েছে। প্রস্তুতকারক সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা বামসি গাদ্দাম জানিয়েছেন, এই বিশেষ বৈদ্যুতিক বাইকটি ভারতের বাইক চালকদেরকে টেকসই এবং পরিবেশবান্ধব সফরের অভিজ্ঞতা দেবে। দেশের যুব সমাজকে নতুন, স্টাইলিশ এবং আরামদায়ক সফর দিতে অ্যাটম ১.০ র মুল্য নির্ধারণ করা হয়েছে মাত্র ৫০,০০০ টাকা।