বন্দুক চালিয়ে মায়ের বিসর্জন, অভিনব প্রথা আসানসোলে

।। প্রথম কলকাতা ।।

আসানসোলের নিয়ামতপুরে রায় পরিবারের পূজার বিসর্জনের আগে পালন করা হয় অভিনব রীতিনীতি। অতীতে কাশীপুরের রাজা পুজোর পর বিজয় দশমীর দিন এইভাবে বিদায় দিতেন মাকে। দিন বদলেছে তাই কাশীপুরের রাজার বংশধর বলে পরিচিত এই রায় পরিবারই এই ঐতিহ্য সংস্কৃতি বজায় রেখেছে এখনও। তারা বন্দুক চালিয়ে বিসর্জনের আচার সম্পন্ন করেন।

আসানসোলের কুলটি নিয়ামতপুরের রায়পাড়া ও রায় পরিবারের ঐতিহ্য মেনে কুলটির বেলরুই রায় পরিবারের পুজোতে বন্দুক চালিয়ে দোলা বিসর্জন করা হল। মায়ের প্রতিমার বদলে দোল বিসর্জন দেওয়ার নিয়ম রয়েছে এই পরিবারে। এদিন নিয়মরীতি মেনে রায় পরিবারের সদস্যরা নিজেদের লাইসেন্স প্রাপ্ত থেকে গুলি বর্ষন করে প্রতিমাকে বিসর্জন দেওয়া হয়েছে।

আরো পড়ুনঃ নিয়ম মেনে প্রতিমা নিরঞ্জন সম্পন্ন হল কোচবিহারের বড় দেবীর

প্রায় ৩০০ বছর ধরে বেলরুই রায় পরিবারের পুজোতে এই নিয়মরীতি পালিত হয়ে আসছে। তাই করোনা আবহের মধ্যে সেই ঐতিহ্য মেনে গুলি বর্ষন করে মাকে বিদায় দেওয়া হয়েছে। পরিবারের প্রত্যেকটি সদস্য নিয়ম মেনে একে একে গুলি চালিয়েছেন আকাশের দিকে। তবে সকলেই করোনার বিধি পালন করে প্রথা সম্পন্ন করেছেন।

শুধু ছেলেরাই নয়, এই প্রথা পালনে সামিল হয়েছে পরিবারের মেয়েরাও। তারাও একইভাবে বন্দুক চালিয়ে গুলি করেছেন আকাশের দিকে। এই প্রথা সম্পন্ন হয়েছে পারিবারিক আবহেই। বাড়ির প্রতিটি মেয়ে, বউয়েরা বন্দুক তাঁক করে এই প্রথা সম্পন্ন করেছেন। সব মিলিয়ে বিষাদের সুরকে তারা বদলে দিয়েছেন আনন্দের আমেজে।

Categories