অভিনেত্রীদের ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছেঃ এনসিবি

1 min read

।। স্বর্ণালী তালুকদার ।। কলকাতা ।।

শনিবার নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো বলিউডের তিন অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন, সারা আলি খান ও শ্রদ্ধা কাপুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল। অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর বিষয়ে এনসিবির তদন্তের জন্য প্রাথমিকভাবে মাদক বিষয়ক তদন্ত শুরু হয়েছিল এবং তার জেরে অভিনেতার লিভ-ইন পার্টনার রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল মাদক পাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার জন্যে।

শুক্রবার  এনসিবি জয়া সাহা এবং করিশমা প্রকাশকে জেরা করেছিল,  যারা কোয়ান প্রতিভা পরিচালন সংস্থার কর্মচারী ছিলেন। দুই কর্মীই মাদক নিয়ে কথোপকথনের বিষয়ে ওয়াটসঅ্যাপের চ্যাটের অস্তিত্ব স্বীকার করেন। একই সঙ্গে শুক্রবার  অভিনেত্রী রকুল প্রীত সিংকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল, যিনি মাদক সেবন করার বিষয়টি সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছিলেন।

সর্বভারতীয় গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী এনসিবি করিশমা প্রকাশ,  জয়া সাহা,  রকুল প্রীত সিং এবং ফ্যাশন ডিজাইনার সিমোন খাম্বাটা সহ দীপিকা পাডুকোন, শ্রদ্ধা কাপুর, এবং সারা আলি খানের ২০১৯ সালের সমস্ত মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ফোনগুলি  ফরেনসিক বিশ্লেষণের জন্য পাঠানো হবে, তথ্য প্রমাণ সংগ্রহের জন্য ।

জেরা চলাকালীন দীপিকা বেশ কয়েকবার আবেগ প্রবণ হয়ে পড়েন বলে এনসিবি সূত্রে খবর। তবে আধিকারিকেরা তাঁর এই আবেগকে বিন্দুমাত্র পাত্তা না দিয়ে কেবলমাত্র উত্তর দিতে অনুরোধ করা হয়েছিল। মাদক সেবনের বিষয়েও তিনি বাকি অভিনেত্রীদের মত অস্বীকার করেন। প্রায় পাঁচ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করার পর তাঁকে বাড়ি যেতে দেওয়া হয়।

অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুর এবং সারা আলি খানও মাদক সেবন করার বিষয়ে বা মাদক কেনার বিষয়ে সমস্ত দাবি সম্পূর্ণ রূপে অস্বীকার করেছেন। এনসিবির তরফে জানানো হয়েছে যে এই মূহুর্তে অন্য কাউকে নতুন সমন জারি করা হবে না এবং রবিবার দিল্লিতে মহাপরিচালক রাকেশ আস্তানার কাছে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন উপস্থাপন করতে যাবেন আধিকারিকেরা। আরো পড়ুনঃ দীপিকা মাল-এর ব্যাখ্যা দিলেন!