দিলীপ ঘোষের উপরে কিছু অতৃপ্ত আত্মার কু নজর পড়েছে, মন্তব্য কুনালের

।। রাজীব ঘোষ ।।

বিজেপি সম্পূর্ণ একটি আলাদা রাজনৈতিক দল। তাদের দলের ভিতর কতগুলো গোষ্ঠী থাকবে কিভাবে চলবে সেই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। তবে সংবাদ মাধ্যমে বিজেপির যে খবর বেরিয়েছে তাতে তাদের একটা তাগিদ রয়েছে। অন্তত ওপরে একটা কিছু দেখানোর ব্যাপার রয়েছে। তবে স্থির বিশ্বাস যেটা বোঝা যাচ্ছে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের উপরে কিছু অতৃপ্ত আত্মার কু নজর পড়েছে।

প্রথম কলকাতায় সাক্ষাৎকারে বলেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। তিনি আরো বলেন রাজ্য বিজেপির মঞ্চে কারা এক সঙ্গে থাকবেন কারা আলাদা আলাদাভাবে বৈঠক করবেন সেটা একান্তই তাদের ব্যাপার। রাজ্যের নির্বাচনে বিজেপির লড়াইয়ের প্রসঙ্গে কুণাল বলেন বিজেপি এর আগেও লড়েছে। এটাতো কোনো নতুন দল নয়। দেখা যায় যে মানুষ দিল্লিতে বিজেপি কে ভোট দিয়েছেন সেই মানুষ রাজ্যের নির্বাচনে এসে আর বিজেপিকে ভোট দেন না।

বিজেপির মঞ্চে কারা একসঙ্গে এলেন তারা আদৌ একসঙ্গে থাকছেন কি না মুখ আর মুখোশের আড়ালে কোনো পার্থক্য থাকবে কিনা সেই বিষয়টা ও দেখতে হবে বলে জানান তিনি। দিলীপ ঘোষ সাংসদ হয়েছিলেন। আবার উপনির্বাচনে তার কেন্দ্র থেকেই বিজেপি হেরে গিয়েছে। আদি তৎকাল এবং আরএসএস বিজেপি এরা আগে ঠিক করে দেখুন কে কাকে মানবেন। একমঞ্চে ওঠাটা কোনো চিন্তার বিষয় নয়। সেটা ওদের সমস্যা। কর্মীদের কাছে কিভাবে দেখাবেন। মুকুল রায়ের তৃণমূলে ফেরা প্রসঙ্গে বলেন এটা তার এবং দলের নেতৃত্বে ব্যাপার।

এক দলে থেকে যাওয়াটা মূল্যবোধের কাজ করে। দলবদল কৃতিত্বের নয় বলে জানান তিনি। এর পরেই কুনাল বলেন দলে যাতায়াতের ব্যাপারে কিছু প্রকারভেদ আছে। অনেক সময় নেতা আগে যান পরে অনুগামীরা সেই দলে যান। আবার অনেকের স্টাইল রয়েছে আগে অনুগামীদের ফিরিয়ে দেওয়া পরে নিজে আসা। একেকজনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন রণনীতি থাকে। দেখুন কোথাকার জল কোথায় দাঁড়ায়। এদিনের সাক্ষাৎকারে তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করলেন কুণাল ঘোষ।