Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দলের শক্তি বৃদ্ধির লক্ষ্যে আলিপুরদুয়ারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই উত্তরবঙ্গে শক্তিশালী হয়েছে বিজেপি অন্যদিকে কিছুটা হলেও শক্তি ক্ষয় হয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের। আর এরপর বিধানসভা নির্বাচনের আগে হারানো জমি ফেরানোর লক্ষ্যে কিছুদিন আগেই উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। আর এবার বছরের প্রথমেই দলকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। আজ, আলিপুরদুয়ার জেলার হাসিমারা তোর্ষা কালিমন্দিরে পুজো দিলেন অভিষেক ব‍ন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)।

আজ দুপুর ১২.৪০ মিনিট নাগাদ হাসিমারা তোর্ষা শশ্মান কালি মন্দিরে আসেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রায় আধ ঘণ্টা সেখানে থেকে পুজো দিয়ে আবার আলিপুরদুয়ারের উদ্দ্যেশে রওনা দেন তিনি। এরপর আলিপুরদুয়ার সার্কিট হাউজে সাংগঠনিক বৈঠক করার কথা রয়েছে অভিষেক ব‍ন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee)। তৃণমূল সূত্রে খবর, বৈঠকে দলের বাছাই করা নেতাদের ডাকা হবে। মূলত জেলার কোন এলাকায় দলের কী পরিস্থিতি তা নিয়েই অভিষেক পর্যালোচনা করবেন বলে জেলা তৃণমূল সূত্রে খবর।

আরো পড়ুন :বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মদিন সত্যিই কী আজ ?

প্রসঙ্গত, গত লোকসভা নির্বাচনে আলিপুরদুয়ার কেন্দ্রে কার্যত ভরাডুবি হয়েছিল তৃণমূলের। অন্যদিকে ওই নির্বাচনে জেলার পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রেই এগিয়ে ছিলেন বিজেপি প্রার্থীরা। পাশাপাশি লোকসভা নির্বাচনের পরে জেলায় তাদের সাংগঠনিক শক্তি আরও অনেকটা বেড়েছে বলেও দাবি করেন গেরুয়া শিবিরের নেতারা। অন্যদিকে, লোকসভা নির্বাচনের পরে আলিপুরদুয়ারে শাসক দলের সভাপতি পরিবর্তন হলেও মাস কয়েক আগে নতুন জেলা কমিটি গঠন হতেই দলের অন্দরে কার্যত চরমে পৌঁছায় গোষ্ঠীকোন্দল বলে অভিযোগ।

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, এই পরিস্থিতিতে শিলিগুড়িতে দলের জেলা শীর্ষ নেতাদের নিয়ে ইতিমধ্যেই বৈঠক করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। জানা যায়, সেই বৈঠকে নেতাদের আলাদা আলাদা করে দায়িত্ব ভাগ করে দিয়েছিলেন তিনি। নেতারা সেই দায়িত্ব কতটা পালন করেছেন, মঙ্গলবারের বৈঠকে তারও পর্যালোচনা করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর। আর তাই, এই অবস্থায় বিধানসভা নির্বাচনের আগে জেলার বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Bandopadhyay) এই বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন তৃণমূলের জেলা শীর্ষ নেতারা বলে সূত্রের খবর।