Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বাম-কংগ্রেস জোটেই আব্বাস, কাল চূড়ান্ত রফা, ব্রিগেডে থাকবে আইএসএফ

।। প্রথম কলকাতা ।।

শেষ মুহূর্তে বড় পরিবর্তন কিছু না হলে বাম, কংগ্রেস জোটেই থাকছেন আব্বাস সিদ্দিকীরা। শুক্রবার এমনটাই জানিয়েছেন তাঁরা। এমনকি রবিবার ব্রিগেডের সমাবেশেও থাকবে আইএসএফ। তবে সেখানে আব্বাস নিজে উপস্থিত থাকবেন কিনা সেটা এখনও পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়নি। এদিন বিষয়টি নিয়ে আব্বাস সিদ্দিকী বলেন,” বাম কংগ্রেস জোটের সঙ্গে থাকব। বামেদের সঙ্গে ৩০ টি আসন নিয়ে সমঝোতা হয়ে গিয়েছে। কংগ্রেসের সঙ্গে এখনও বাকি আছে। আজ আমরা তাদের চিঠি দিয়েছি নতুন করে। আশা করছি আগামীকাল প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়ে যাবে”‌ । জানা গিয়েছে আব্বাসের নতুন দল আইএসএফের তিনজন নেতা ব্রিগেডের সমাবেশে উপস্থিত থাকবেন ‌। তবে আব্বাস নিজে উপস্থিত থাকবেন কিনা সেটা এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

উল্লেখ্য গতকাল রাতেই বামেদের সঙ্গে আসন রফা চূড়ান্ত হয়ে যায় আব্বাসদের। কিন্তু কংগ্রেসের টালবাহানায় এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়নি তাদের নিয়ে। যদিও আব্বাস মনে করছেন কাল শনিবার জটিলতা কেটে যাবে। বহরমপুর থেকে আগামীকাল সকালে কলকাতায় আসছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। শনিবার বামেদের সঙ্গে পুনরায় কথা হবে কংগ্রেসের। সেইসঙ্গে আব্বাসের সঙ্গেও চূড়ান্ত কথা বলবেন অধীর। এখনও পর্যন্ত ঠিক হয়েছে রবিবার ব্রিগেড সমাবেশ থেকে চূড়ান্ত ঘোষণা করবেন জোটের শীর্ষ নেতৃত্ব। কংগ্রেস কটা আসন আব্বাসের দলকে ছাড়বে সেটা চূড়ান্ত হয়নি বলেই আটকে রয়েছে জোটের পূর্ণাঙ্গ ছবিটা। বিষয়টি নিয়ে বেশ কয়েকবার অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন সিপিএম নেতৃত্ব।

এমনকি বিরোধী দলনেতা চাঁপদানির কংগ্রেস বিধায়ক আব্দুল মান্নান পর্যন্ত ঠারেঠোরে বিষয়টি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রদেশ সভাপতি অধীরের ভূমিকা নিয়ে। এমনকি জোট প্রক্রিয়া যাতে মসৃণভাবে হয় সে ব্যাপারে তিনি চিঠি দিয়েছেন দলনেত্রী সোনিয়া গান্ধীকে। এরপরই কিছুটা পরিস্থিতির বদল হয়। কংগ্রেস সূত্রে খবর, আগের চেয়ে নমনীয় অবস্থান নিয়েছেন অধীর চৌধুরী। যদিও মালদা এবং মুর্শিদাবাদে তিনি যে আব্বাসের দলকে একটির বেশি আসন ছাড়বেন না, সেটা নিশ্চিত। সেই পরিস্থিতিতে কংগ্রেসের ভাগ থেকে দক্ষিণবঙ্গের অন্য জায়গা থেকে আসন চাইছেন আব্বাস। তাই শনিবার বিষয়টি নিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব কি অবস্থান নেন সেটাই এখন দেখার।