বাংলার গর্বের ইতিহাসে জড়িত অপরূপ কোহিমা

।। প্রথম কলকাতা ।।

কোহিমা। এই নামেই লুকিয়ে আছে বাঙালির গর্বের ইতিহাস। জড়িয়ে আছে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আজাধীন বাহিনী সংগ্রামের ইতিহাস।কোহিমা শহরে যেতে গেলে আগে পৌঁছতে হবে ডিমাপুরে।
ডিমাপুর থেকে খুলনার দূরত্ব 74 কিলোমিটার। ইম্ফল বিমানবন্দর থেকে কোহিমার দূরত্ব 145 কিলোমিটার।

এই জায়গাটি একদম অন্যরকম ‌।কারণ প্রকৃতি দুই হাতে ঢেলে সাজিয়ে তুলেছে এই ভূখণ্ডকে।
একদিকে খরস্রোতা পাহাড়ি নদী।অন্যদিকে ঘন সবুজের চাদরে ঢাকা পাহারি উপত্যকা।
সেইসঙ্গে পাখির গানসব মিলিয়ে নাগাল্যান্ডের রাজধানী কোহিমা জানো মেঘের আড়ালে লুকিয়ে থাকা এক টুকরো স্বর্গএ শহরে খুব একটা শহরের আনাগোনা চোখে পড়ে না ‌কলকাতা থেকে কমবেশি প্রায় 5 থেকে 6 ট্রেন রয়েছে ডিমাপুর পর্যন্ত ‌‌কোহিমা হলো এমন একটি জায়গা যেখানে ইতিহাস প্রকৃতি অ্যাডভেঞ্চার এরশাদ একসাথে মিলবে ‌কোহিমায় রয়েছে

কোহিমা ওয়ার সিমেট্রি
নাগা হেরিটেজ ভিলেজ
কোহিমা মিউজিয়াম

কোহিমা পাহাড়ী ভ্যালির যে সৌন্দর্য উপভোগ করবে তারা জীবনে কখনো ভুলতে পারবে না তা হলফ করে এক প্রকার বলা যায়।বড় মাঝারি ছোট সব ধরনের হোটেলে ব্যবস্থা রয়েছে কোহিমায়।