‘আমফান ঘূর্ণিঝড়ে ৯৯% তৃণমূলীরাই ক্ষতিপূরণ পেয়েছে’, দিলীপ ঘোষ

1 min read

।। হিমাদ্রি মণ্ডল ।।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে দুবরাজপুরে নির্বাচনী প্রচারে এসে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের একটি মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে দুবরাজপুর থানায় একটি মামলা হয়। যে মামলায় বুধবার আদালতে হাজিরা এবং জামিন নেওয়ার জন্য দুবরাজপুর এসেছিলেন দিলীপ ঘোষ। আর দুবরাজপুরে এসে তিনি আমফান ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন।

আমফান ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ৯৯% মানুষ ক্ষতিপূরণ পেয়েছে বলে দাবি করেছে তৃণমূল। আর এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এদিন দিলীপ ঘোষ জানান, “যারা টাকা ফেরত দিচ্ছে তাহলে তারা কাদের? আমিও বলছি ৯৯% মানুষ ক্ষতিপূরণ পেয়েছে। আর ওরা সব টিএমসির লোক, আর যাদের বাড়িঘর ভাঙ্গেনি। দিদিমণি বাকিটা বলেননি যেটা আমি বলে দিচ্ছি।”

এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করেন করোনা যোদ্ধাদের কারো যদি মৃত্যু হয় তাহলে তাদের পরিবারের একজন চাকরি পাবেন এবং আর্থিক ক্ষতিপূরণ পাবেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষের প্রশ্ন, “যারা মারা গেছে তাদের ক্ষতিপূরণটা কোথায় গেল? সেই ডাক্তার, সেই পুলিশ অফিসার, সাধারণ মানুষ! উনি ক্ষতিপূরণ দেবেন না বলে লাশই গায়েব করে দিচ্ছেন। বাড়ির লোক জানে না তার আত্মীয় কোথায় গেল, তার বাবা-মা কোথায় গেল। তাকে কোথায় পোড়ানো হলো, তার কোথায় অন্ত্যেষ্টি হলো। এসব মিথ্যা কথা অনেক শুনেছে লোক, দিদিমনির কথা আর কেউ বিশ্বাস করে না।”

করোনা আবহে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন এখন রাজনীতি করার সময় নয়। আর এই রাজনীতি নিয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, “আমিও তো বলছি রাজনীতি করতে কে বলল। উনি তো রাজনীতি ছাড়া কিছুই করেননি। রাস্তায় নেমে চাল-ডাল বিতরণ করছেন যেটা ক্লাবের ছেলেরা করে থাকে। তাই রাজনীতি কি উনি একাই করবেন আর কেউ করবে না। উনি যদি করতে পারেন তাহলে আমরা কেন করতে পারবো না।

এম/বি