Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বয়স পেরিয়ে গেলে যুব মোর্চার পদ ছেড়ে দিতে হয়, নতুন কোন ইঙ্গিত দিলেন সৌমিত্র ?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

বর্তমানে তাঁকে নিয়ে রাজনীতিতে কৌতূহলের শেষ নেই। তিনি হলেন সৌমিত্র খাঁ। গত কয়েকদিন ধরেই রাজ্য রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন সৌমিত্র খাঁ। ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর তাঁর তৃণমূলের প্রত্যাবর্তন নিয়ে গুঞ্জন উঠেছিল। বয়স পেরিয়ে গেলে এমনিতেই যুব মোর্চার পদ ছেড়ে দিতে হয়, এটা নতুন কিছু নয়। আমি কি সারা জীবন যুব মোর্চা করবো ! দলের তরফে রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতির পদ থেকে তাঁকে সরানোর তোড়জোড়ের মাঝেই এই মন্তব্য করলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

রবিবার বিষ্ণুপুর শহরের একটি বেসরকারী লজে দলের সাংগঠনিক সভায় যোগ দিতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এই কথা বলেন তিনি। একই সঙ্গে শুভেন্দু-সৌমিত্র সাম্প্রতিক দ্বৈরথ নিয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তিনি বলেন,কোনো রাগ নেই। তবে রাজনীতিতে রাগ-অভিমান ওটাও চলে, আবার রাজনীতি-কূটনীতিও চলে’। তাঁকে কটাক্ষ করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ‘এক গাছের ছাল অন্য গাছে লাগানো’ প্রসঙ্গে সৌমিত্র খাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘দুধ জলে মিশে গেলে কি জলটাকে আলাদা করা যায়!’

এদিন রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি ও স্থানীয় সাংসদ সৌমিত্র খাঁ শহরে পৌঁছানোর আগে থেকেই অসংখ্য কর্মী সমর্থক স্টেশন চত্বরে ভীড় করেন। সেখান থেকে বাইক মিছিল করে ‘সৌমিত্রদা জিন্দাবাদ’ আওয়াজ তুলে তাঁরা সভাস্থলে হাজির হন। এই দিনের সভায় সৌমিত্র খাঁ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দলের বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি সুজিত অগস্থী সহ ঐ এলাকার বিজেপির পাঁচ বিধায়ক সহ অন্যান্যরা। সৌমিত্র খাঁ বলেন তৃণমূলকে পাঁচ এক করেছি এবার শূণ্য করতে চাই।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ

Categories