Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘কিছু গাছের ছাল লাগছেনা বুঝতে পারছি ,ঝরে পড়ছে’ কাদের উদ্দ্যেশে বললেন দিলীপ ঘোষ ?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

একদিকে অগ্নিমূল্য পেট্রোল-ডিজেল। অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক তোপ দাগছেন সৌমিত্র খাঁ থেকে শুরু করে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও।
নাম না করে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছেন তাঁরা।আজ ইকোপার্কে এইসব বিষয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে দলের অবস্থান স্পষ্ট করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। প্রায় প্রত্যেকদিনের মত আজও ইকোপার্কে প্রাত:ভ্রমণে এসে সাংবাদিকের মুখোমুখি হন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। অগ্নিমূল্য পেট্রোল-ডিজেলের বিরুদ্ধে পথে নেমে আন্দোলন শুরু করতে চলেছেন তৃণমূল বিধায়করা। এই প্রশ্ন সাংবাদিকরা করলে তার উত্তরে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ভারতীয় জনতা পার্টি রাস্তায় নেমে গেছে, বিধানসভার মধ্যে আন্দোলন করছে তা দেখে ওনারাও কিছু করতে চাইছেন।’

পাশাপাশি তাঁর মন্তব্য, ‘পেট্রোপণ্যের দাম আন্দোলন করে আজ পর্যন্ত কমেনি। কমার সম্ভাবনা নেই। আন্তর্জাতিক বাজারে যখন স্থিতিশীল হবে তখন কমবে।’ একইসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘এই সরকারের যদি অত চিন্তা তাহলে তারা যে ট্যাক্স নেন সেটা কমান। তাহলেই তো কমে যাবে।’ মন্তব্য দিলীপ ঘোষের। ‘পার্টির গায়ে অন্য গাছের ছাল’ তাঁর নিজের করা মন্তব্য নিয়েই তাঁকে প্রশ্ন করলে দিলিপ ঘোষ বলেন, ‘এক গাছের ছাল অন্য গাছে সহজে লাগেনা। কখনও কখনও লেগে যায়। কিছু কিছু লাগছেনা বুঝতে পারছি। ঝরে পড়ছে।’ ঝরে যাওয়া অবধি অপেক্ষা করবেন না তার আগেই কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হবে ? এই প্রশ্নের উত্তরে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘আমরা আমাদের কাজ করছি। যারা ভারতীয় জনতা পার্টির আইডিওলজি জানেন, তাঁরা জেনেই এসেছেন। তাঁদের যদি ব্যক্তিগত স্বার্থ পার্টির স্বার্থের চেয়ে বড় হয় তখনই সমস্যা।’ বলে মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোস্ট নিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘এসব সাময়িক সমস্যা থাকেই। সময় মিটে যাবে। ভারতীয় জনতা পার্টি যে গতিতে এগোচ্ছিল যাদের উপর ভর করে এগোচ্ছিল সেভাবেই এগোবে।’ এইভাবেই দলের অবস্থান স্পষ্ট করে দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সৌমিত্র খাঁর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট ‘জল ও দুধের সাথে বন্ধুত্ব আছে।’ বাবুল সুপ্রিয় বলেছেন, ‘হাঁফ ছেড়ে বাঁচতে আপনি আনন্দ পেয়েছেন।’ এই নিয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে দিলীপ ঘোষের স্পষ্ট উত্তর, ‘ যে যার মত করে ব্যাখ্যা করতে পারে। আমি পার্টির তরফ থেকে বলে দিয়েছি। যাদের অসুবিধে হচ্ছে সেখানে কিছু গন্ডগোল আছে।’ স্পষ্ট মন্তব্য দিলীপ ঘোষের। পিএসি কমিটির চেয়ারম্যান মুকুল রায়,
এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘সরকার চাইছে সমস্ত ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখতে।

এবং সামান্য প্রশ্নও কেউ তুলতে না পারে সেই রাস্তা পরিস্কার করে রাখতে। আমরা যে নাম পাঠিয়েছি তার থেকে করা হয়নি।তারা ইচ্ছামত করতে চাইছেন। বিরোধী এবং সরকার দুটো রোলই প্লে করতে চাইছেন। বিরোধী শূণ্যভাবে একক ভাবে সরকার চালাতে চাইছে। আমরা বলেছিলাম সহযোগিতা করবো। তারা বোধহয় আমাদের সহযোগিতা চাননা। তাহলে আমরা বিরোধীদের ভূমিকা ভালো করে পালন করবো।’ বলেও কার্যত হুঁশিয়ারি ছুঁড়ে দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একইসঙ্গে ‘সময় আসছে, এই সরকার খুব তাড়াতাড়ি ফেলিওর হবে’ বলে মন্তব্য করতেও শোনা যায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ

Categories