কয়লা কেলেঙ্কারি মামলায় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ৩ বছরের জেল

1 min read

।। সুদীপ মান্না ।।

১৯৯৯এ ঝাড়খণ্ড কয়লা ব্লক বন্টনে দুর্নীতির অভিযোগে ৩ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হলেন, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দিলীপ রায়।

দিলীপ রায় ছাড়াও বিশেষ সিবিআই আদালত এই মামলায় দোষী সাব্যস্ত আৎও ২ জনকে ৩ বছরের জেলের সাজা দিল।

বিশেষ বিচারপতি ভরত পরাশর সমস্ত দোষীদের ১০ লাখ চাকা করে জরিমানার আদেশও দিয়েছেন।

দিলীপ রায়ের আইনজীবী জানিয়েছেন, তারা জামিনের আবেদন করবেন। দণ্ডাজ্ঞার বিরুদ্ধেও আর্জি জানানো হবে।

অটস বিহারী বাজপেয়ীর সরকারে কয়লা প্রতিমন্ত্রী ছিলেন দিলীপ রায়। তিনি এই মাসের শুরুতেই এই আদালতে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র সহ বিভিন্ন ধারায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।

১৪ই অক্টোবর এই নিয়ে শুনানি হয়েছিল এই আদালতে, যেখানে সিবিআই ও দোষীরা তাদের চূড়ান্ত বক্তব্য রেখেছিলেন। তারপরই বিশেষ বিচারক ভরত পরাশর সোমবার তার রায় ঘোষণা করলেন।

শুনানির সময় সিবিআই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও অন্য দোষীদের জন্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আবেদন করেছিল। তাদের যুক্তি ছিল, হোয়াইট কলার অপরাধ বেড়েই চলেছে এবং সমাজকে বার্তা দিতে সর্বোচ্চ সাজা দেওয়া প্রয়োজন।

আরও পড়ুন: ভারতীয় নাগরিকদের জন্য বিনামূল্যে কোভিড টিকা, জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

সিবিআই-এর পক্ষ থেকে পাবলিক প্রসিকিউটার ভিকে শর্মা ও এপি সিং তৎকালীন কয়লা মন্ত্রকের ২ সিনিয়ার আধিকারিক প্রদীপ কুমার ব্যানার্জী ও নিত্যানন্দ গৌতম ও সিটিএল-এর ডিরেক্টর মহেন্দ্র কুমার আগরওয়ালকে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়ার আর্জি জানিয়েছিলেন।

দোষী ব্যক্তিরা আদালতকে আর্জি জানিয়েছিল, তাদের বয়স ও প্রথম আপরাধকে বিবেচনা করে যেন ক্ষমাশীল দৃষ্টিতে দেখা হয়।

Categories