Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Srijit Mukherjee: ৪৫-তম জন্মদিনে সৃজিত মুখোপাধ্যায়, তাঁর হাত ধরেই বাংলা চলচ্চিত্র পেয়েছে নতুন ‘ঘরানা’

1 min read

।।  প্রথম কলকাতা ।।

Srijit Mukherjee 45th Birthday: আজ ২৩ সেপ্টেম্বর। ৪৪-এর গন্ডি পেরিয়ে ৪৫-পা দিলেন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় (Srijit Mukherjee)। খুব কম সময়ে সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছে যাওয়া বাঙালি পরিচালকদের মধ্যে অন্যতম তিনি। এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বাংলা চলচ্চিত্রের জগতে কার্যত দাপিয়ে কাজ করে চলেছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। শুধু ছবি পরিচালনাই করেন না। ছবি পরিচালনার পাশাপাশি তিনি অভিনেতা, চিত্রনাট্যকারও।

জন্ম ১৯৭৭ সালে ২৩ সেপ্টেম্বর। ছোট থেকেই পড়াশোনা সারেন দোলনা ডে হাই স্কুল এবং সাউথ পয়েন্ট স্কুল থেকে। তারপর প্রেসিডেন্সী কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক হন। পরবর্তীকালে জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে এম.ফিল এবং পিএইচডি শেষ করেন। সেই সূত্রেই শুরু হয় চাকরি জীবন। সেখানেই দিল্লিতে ইংরেজি সার্কিট থিয়েটারের সাথে যুক্ত হন। সেখান থেকে বারে পরিচালনায় আগ্রহ।

এরপর ২০১০ সালে প্রথম ছবি ‘অটোগ্রাফ’ পরিচালনার মধ্যে দিয়ে টলিউডে কেরিয়ার শুরু করেন। যা বক্স অফিসে ব্যাপক হিট করে এবং সমালোচকদেরও প্রশংসা অর্জন করে। বলাই বাহুল্য, প্রথম ছবি থেকেই এক কথায় ছক্কা হাঁকাচ্ছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। তবে, তাঁর পরিচালিত ছবি যে শুধু বাংলা ছবির দর্শকদের জন্য তৈরি হয়েছে, তা নয়। তিনি বাংলার গন্ডি পেরিয়ে ছবি তৈরি করছেন বলিউডেও।

২০১০-এ ‘অটোগ্রাফ’ এর পর ২০১১ সালে আনেন ‘২২ শ্রাবণ’ সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ঘরানায় তৈরি এই ছবি। তার ঠিক পরের বছর দর্শকদেন ‘রোম্যান্টিক ডার্ক কমেডি’ হিসেবে ২০১২ সালে দর্শকদের জন্য ‘হেমলক সোসাইটি’ উপহার দেন  সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ২০১৪ সালে মুক্তি পায় সৃজিতের মিউজিক্যাল ড্রামা ‘জাতিস্মর’। এই ছবির হাত ধরে বাংলার ছবির ঘরে আসে একাধিক জাতীয় পুরস্কার। ওই একই বছর চতুর্মুখী প্রেমের গল্প নিয়ে রোমান্টিক থ্রিলার সুপারহিট ছবি ‘চতুষ্কোণ’ উপহার দেন সৃজিত। এই ছবিও সৃজিতের হাতে তুলে দিয়েছিল জাতীয় পুরস্কার। অপর্ণা সেন, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, গৌতম ঘোষ, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, চিরঞ্জিত চক্রবর্তী অভিনীত এই ছবি জিতে নিয়েছিল ‘সেরা চিত্রনাট্য’ এবং ‘সেরা পরিচালক’ বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

এরপর ২০১৫ সালে সৃজিতের ভিন্নধর্মী কাজের উদাহরণ হিসেবে রিলিজ হয় ‘নির্বাক’। ওই বছরই মুক্তি পায় তাঁর পরিচালিত ১৯৪৭-এর প্রেক্ষাপটে তৈরি ‘রাজকাহিনি’।

২০১৮ সালে মুক্তি পায় ‘উমা’। কানাডায় অন্টারিওতে অবস্থিত সেন্ট জর্জ শহরে বাসিন্দা ইভান লিভারসেজের জীবন-মরণ সম্পর্কিত সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি হয়েছিল এই ছবি। এরপর ওই বছরই মুক্তি পায় সৃজিত পরিচালিত আরও এক ছবি ‘এক যে ছিল রাজা’। বাংলাদেশের বর্তমান গাজীপুর জেলার বহুল চর্চিত ভাওয়াল সন্ন্যাসীর মামলা ও ইতিহাসকে প্রেক্ষাপট করে তৈরি এই ছবি পরিচালকের আরও একবার ঝুলিতে এনে দিয়েছিল জাতীয় পুরস্কার।

২০১৯-এ মুক্তি পায় গুমনামী। এরপর গতবছর শুরুর দিকে বাংলা ছবির দর্শকদের আরও একবার ‘সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার’ -এর স্বাদ ফিরিয়ে দিতে সৃজিত আনেন ‘বাইশে শ্রাবণ’-এর সিক্যুয়াল ‘দ্বিতীয় পুরুষ’। এছাড়াও সৃজিত মুখোপাধ্য়ায়ের পরিচালিত হেমলক সোসাইটি, মিশর রহস্য, জুলফিকর, ইয়েতি অভিযান সহ একাধিক ওয়েব সিরিজ দর্শকদের তো বটেই সমালোচকদেরও প্রশংসা কুড়িয়েছে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories