Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Tehran: মাহসা আমিনির মৃত্যুর প্রতিবাদ! হিজাব পোড়াচ্ছেন, চুল কাটছেন ইরানি মহিলারা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

২২ বছরের মাহসা আমিনির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ইরান তথা সারা বিশ্বে এখন প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। ইরানের বহু মহিলা এই প্রতিবাদের সামিল হয়েছেন। কেউ বা নিজেদের মাথার চুল কেটে দিচ্ছেন, আবার কেউ বা হিজাব পুড়িয়ে ফেলছেন।

কঠোর পোশাক বিধি সংক্রান্ত আইনের আওতায় শুক্রবার মাহসা আমিনি নামক ২২ বছর বয়সী ওই তরুণীকে তেহরান থেকে আটক করা হয়েছিল। পরে ইরান পুলিশি হেফাজতে তিনি খুব অসুস্থ হয়ে পড়েন। ইরানে মহিলাদের হিজাব পরা নিয়ে নানান কঠোর নিয়ম রয়েছে। এই দেশের নীতি পুলিশের দল সেই সব বিধি সঠিকভাবে কার্যকর হচ্ছে কিনা সেই বিষয়ে কঠোরভাবে তদারকি করে। সেই বিধির অধীনেই মাহসা আমিনিকে আটক করা হয়েছিল।

জানা যায় আটকের পরে তিনি অত্যন্ত অসুস্থ হয়ে পড়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদে ইরানি মহিলারা কেউ বা নিজেদের মাথার চুল কেটে দিচ্ছেন, আবার কেউ বা হিজাব পুড়িয়ে দিচ্ছেন। সেই প্রতিবাদের ভিডিও তুমুল ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

বিক্ষোভ এখন পশ্চিম ইরান জুড়ে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। তরুণীর মৃত্যুর প্রতিবাদে বহু নারী তাদের হিজাব খুলে ফেলেছেন, আবার অনেকেই স্লোগান দিচ্ছেন ‘অত্যাচারীর মৃত্যু হোক’। কিছু ভিডিওতে দেখা যায়, বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে নিরাপত্তা কর্মীরা কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করছে। মূলত ইরান সরকারের নিয়ম অনুযায়ী, সাত বছরের বেশি মহিলাদের বাধ্যতামূলকভাবে হিজাব পরতে হবে। প্রতিবাদে বহু মহিলা তাদের চুল কেটে ফেলেন এবং হিজাবে আগুন দিয়ে দেন। ইরানি সাংবাদিক এবং অ্যাক্টিভিস্ট একটি ভিডিও ট্যুইট করেন, যেখানে এই দৃশ্যগুলি দেখতে পাওয়া গিয়েছে। ইরানের রক্ষণশীল নেতাদের অনৈতিক আচরণের বিরুদ্ধে নারীরা জনসম্মুখে আন্দোলনের আহ্বান জানিয়েছেন। অনেকে মনে করছেন এটি করে তারা নিজেদেরকে জেলের ঝুঁকিতে ফেলেছেন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories