Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Heart Attack Risk: দিনের কোন সময়ে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেশি? কী বলছে গবেষকরা?

।। প্রথম কলকাতা ।।

বর্তমানে হৃদরোগ জনিত নানান সমস্যা বহু মানুষকে রীতিমত কাবু করে ফেলেছে। অস্বাস্থ্যকর জীবন যাপন কিংবা একটু দুশ্চিন্তা বাড়লেই হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি তৈরি হয়। এছাড়াও শারীরিক অন্যান্য সমস্যা লেগেই রয়েছে। হার্ট সুস্থ রাখতে চিকিৎসকরা সর্বদা নানান ধরনের পরামর্শ দেন। কোলেস্টেরল কিংবা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বলেন, সুস্বাস্থ্যকর খাবার খেতে বলেন এবং চিন্তা মুক্ত জীবন যাপন করার পরামর্শ দেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর অন্যতম একটি কারণ হল হৃদরোগ। প্রথম থেকেই যদি জীবনযাত্রার দিকে বিশেষ খেয়াল না রাখেন তাহলে একটা বয়সের পর এই রোগ শরীরে বাসা বাঁধতে পারে। হার্ট অ্যাটাক যে কোনো বয়সেই হতে পারে। তবে দিনের কোন সময় হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেশি এই বিষয়ে চলেছে বিস্তর গবেষণা।

ওরেগন হেলথ সাইন্স ইউনিভার্সিটির গবেষণা অনুযায়ী , সকালবেলা হার্ট অ্যাটাকে ঝুঁকি অনেকাংশে বেশি। এর পিছনে তারা যুক্তিগতভাবে বেশ কয়েকটি কারণ দেখিয়েছেন। হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম একটি কারণ হল হরমোন নিঃসরণের ওঠানামা। সকালের দিকে মানব শরীরের সাইটোকিনিন হরমোনের সবথেকে বেশি নিঃসরণ হয়। যার ফলে অ্যারিথমিয়া অবস্থা তৈরি করে। এই সময় মূলত হৃদযন্ত্র দুর্বল থাকে, যার কারণে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

গবেষণা অনুযায়ী মানব শরীর দিনের বেলা সব থেকে বেশি সক্রিয় থাকে। সারাদিন কাজের মধ্যে থাকার সময় অনেকটা পরিমাণ শক্তি ব্যয় হয়। তাই মানুষ রাতের দিকে ক্লান্ত হয়ে পড়ে। যার ফলে রাত্রে ভালো ঘুম হয়। সারাদিন পরিশ্রমের পর শরীর যখনই বিশ্রাম পায় তখন হৃদ স্পন্দনের হার আর রক্তচাপ সব থেকে বেশি থাকে। এছাড়াও অ্যাড্রিনালিনের ক্ষরণ বেড়ে যায় এবং এটি করোনারি ধমনীতে চাপ সৃষ্টি করে। সকালের দিকে রক্তের পিএআই ১ কোষগুলি অত্যন্ত সক্রিয় থাকে। যার কারণে রক্ত জমাট বেঁধে যেতে পারে। বিশেষ করে যাদের ধূমপান মদ্যপানের অভ্যাস রয়েছে, ডায়াবেটিস কিংবা উচ্চচে রক্তচাপ রয়েছে তাদের সতর্ক থাকা উচিত। মূলত ভোর ৪টে থেকে সকাল ১০টার মধ্যে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার আশঙ্কা সবথেকে বেশি। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী হার্ট অ্যাটাক থেকে বাঁচতে প্রয়োজন স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন। পাশাপাশি নিয়মিত হালকা শরীর চর্চা করতে হবে এবং দিনে ৭ থেকে ৮ ঘন্টা পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে হবে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories