Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দুর্গাপুজোর অষ্টমীতে অঞ্জলির এত গুরুত্ব কেন? নেপথ্যে পৌরাণিক কাহিনী

।। প্রথম কলকাতা ।।

দুর্গাপুজোর চার থেকে পাঁচদিন কীভাবে যে হই হই করে কেটে যায় তা বোঝাই যায় না। আর এই কয়েকটি দিনের মধ্যে অন্যতম একটি বিশেষ দিন হল মহাষ্টমী, যা বাঙালির আবেগের সাথে জড়িয়ে রয়েছে। অষ্টমীর দিন মানেই ছেলেদের ধুতি পাঞ্জাবি আর মেয়েদের শাড়ি পরে মায়ের সামনে অঞ্জলি দেওয়া। মহাষ্টমীর অঞ্জলি দিতে ঘুমকাতুরে মানুষরাও খুব তাড়াতাড়ি সকালে বিছানা ছেড়ে উঠে যান। পৌরাণিক কাহিনী অনুযায়ী এই দিনটির গুরুত্ব কম নয়। যদিও দুর্গাপুজোর প্রত্যেকদিনের আলাদা আলাদা বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে।

পৌরাণিক কাহিনী অনুযায়ী, এই মহাষ্টমী তিথিতেই দেবী দুর্গাকে নানান অস্ত্র, পদ্মের মালা, রত্নহার প্রভৃতি দিয়ে সাজিয়ে তুলেছিলেন দেবতারা। ভাদ্র মাসের কৃষ্ণানবমী তিথিতে দেবতাদের তেজ ক্রমশ পুঞ্জিভূত হতে শুরু করে। সেই পুঞ্জিভূত তেজরাশি আশ্বিনের সপ্তমী তিথিতে একটি রূপ ধারণ করে। তাই প্রতিবছর নিয়ম অনুযায়ী সপ্তমী থেকেই দেবীর মূর্তিতে আরাধনা করা শুরু হয়। আর অষ্টমী তিথিতে দেবতারা দেবীকে সাজিয়েছিলেন। তাই এই দিন নানান উপাচারে মণ্ডপে মণ্ডপে দেবী দুর্গাকে সাজানোর প্রয়াস দেখা যায় । এই বিশেষ দিনে তাই নারী পুরুষ নির্বিশেষে নতুন পোশাকে সেজে মায়ের সামনে উপস্থিত হন করজোড়ে প্রার্থনা করার জন্য। ২০২২ সালে অষ্টমী তিথি পড়েছে ৩ রা অক্টোবর (১৬ই আশ্বিন)। এই দিন অষ্টমী তিথি থাকবে ৩টে ৩৯মিনিট ১৮সেকেন্ড পর্যন্ত।

দুর্গাপুজোয় ৫ দিন ধরেই ভিন্ন ভিন্ন নিয়ম পালন করা হয়। তবে অষ্টমীর সঙ্গে জুড়ে রয়েছে কুমারী পুজো। এই দিন বাচ্চা মেয়েদের দুর্গার মর্যাদা দিয়ে দুর্গা রূপে আরাধনা করা হয়। সপ্তমী, অষ্টমী এবং নবমী এই তিন দিনই পুষ্পাঞ্জলি হলেও অতি গুরুত্ব দেওয়া হয় অষ্টমীর অঞ্জলিকে। এই দিন পুরোহিতের মন্ত্র উচ্চারণের পর ভক্তরা হাতে থাকা ফুল পাতা দেবীর চরণে অর্পণ করেন। এই পুষ্পাঞ্জলির মাধ্যমে দেবী দুর্গার প্রতি নিজেদের বিশ্বাস এবং শ্রদ্ধা প্রকাশ করা হয়। অষ্টমী তিথির সমাপ্তি আর নবমীর সূচনা লগ্নে আয়োজন করা হয় সন্ধিপুজোর। জ্বালানো হয় ১০৮টি প্রদীপ। এককালে নবমী তিথিতে পশু বলি দেওয়া হত। তবে বর্তমানে পশু বলি দেওয়া হয় না, সবজি বলির বেশি চল রয়েছে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories