Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

জামিনে গরু পাচারের তদন্ত হবে প্রভাবিত ! আগামী ১৪ দিনও জেলেই থাকছেন অনুব্রত

।। প্রথম কলকাতা।।

গরু পাচার মামলায় তদন্ত করতে নেমে সিবিআই ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে অনুব্রত মণ্ডলকে। বর্তমানে তিনি রয়েছেন জেল হেফাজতে। কীভাবে গরু পাচার হতো, গরু পাচারের লাভের টাকা কী ভাবে তাঁর কাছে এসে পৌঁছতো, সেই টাকা তিনি কোথায় কোথায় বিনিয়োগ করেছেন এই ধরনের প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে বর্তমানে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে সিবিআই আধিকারিকরা। আজ অনুব্রত মণ্ডলকে ফের তোলা হয় আদালতে। তাঁর আইনজীবী তরফ থেকে তাঁর জামিনের আবেদন পর্যন্ত করা হয়। কিন্তু আদালত এর তরফ থেকে খারিজ করে দেওয়া হয়েছে সেই আবেদন। একইসঙ্গে তাকে আরও ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদালতে তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, এই মামলার আগামী শুনানি হতে চলেছে ২১শে সেপ্টেম্বর। অনুব্রত মণ্ডলের তরফ থেকে এদিন বীরভূম জেলার আইনজীবী অনুপম আঢ্য এবং আইনজীবী মলয় মুখোপাধ্যায় আসানসোল আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা অনুব্রত জামিনের জন্য সওয়াল করেন। এর বিরোধিতা করেন সিবিআই আইনজীবী কালিচরণ মিশ্র। তিনি জানান, অনুব্রত মণ্ডলের জামিন হলে তদন্তের ক্ষেত্রে সমস্যা আসতে পারে। প্রভাবিত হতে পারে তদন্ত। এর পরেই একাধিক সওয়াল জবাব হয় আদালতে। অবশেষে বিচারক অনুব্রত মণ্ডলকে ফের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন।

সিবিআই দাবি করে যে, গরুর হাট থেকে বাংলাদেশ সীমান্তে পৌঁছে যেত গরু। শুল্ক দপ্তর এই বিষয়ে কোনো রকম পদক্ষেপ গ্রহণ করলে সীমান্তবর্তী এলাকার স্থানীয়রাই তাতে বাধা দিতেন এবং এই সম্পূর্ণ বিষয়টি অনুব্রতর অঙ্গুলিহেলনেই হত বলে দাবি তদন্তকারী আধিকারিকদের। এর স্বপক্ষে প্রমাণ হিসেবে সিডি পর্যন্ত আছে বলে জানায় সিবিআই । অন্যদিকে এদিন আদালতে অনুব্রতর প্রাক্তন দেহরক্ষী সায়গল হোসেনের উল্লেখ করা হয় সিবিআই এর তরফ থেকে। জানানো হয় যে , তিনি মধ্যস্থতার কাজ করতেন । টাকা তুলতেন তিনি এবং সেই টাকা হাতে এসে পৌঁছাতো অনুব্রতর। বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টা নাগাদ অনুব্রত আসানসোল সংশোধনাগার থেকে বের হন এবং জানান তা্র শরীর খুব একটা ভালো নেই। এরই মধ্যে আদালতের তরফ থেকে ফের জেল হেফাজতের নির্দেশ তাকে ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories