Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

BREAKING : জোড়া খুন কাণ্ডে ক্লোজ বাগুইআটি থানার আইসি, তদন্তের ভার সিআইডির হাতে

।। প্রথম কলকাতা।।

বাগুইআটির বাসিন্দা ২ কিশোর অতনু এবং অভিষেক গত মাসের শেষের দিকে নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার ঘটনায় পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিল তাঁর পরিবার। বাগুইআটি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। কিন্তু তারপরে পুলিশের তরফ থেকে বিশেষ কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি। অবশেষে গতকাল ওই দুই কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় বসিরহাট থেকে। এই ঘটনায় পরিবারের তরফ থেকে পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তোলা হয়েছিল। এবার সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ক্লোজ করা হল বাগুইআটি থানার আইসিকে। একই সঙ্গে জানা গিয়েছে এই ঘটনার তদন্তভার হস্তান্তর করা হয়েছে সিআইডিকে।

এই ঘটনায় পুলিশ প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ উঠেছিল আগে থেকেই। পরিবার সহ এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছিলেন যে, যদি পুলিশ সঠিক সময় সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করত তাহলে ওই দুটি পরিবারকে তাদের সন্তান হারাতে হতো না। ঘটনার মূল অভিযুক্ত হিসেবে নাম উঠে এসেছে সত্যেন্দ্র চৌধুরীর। তা্ঁর বাড়িতে ক্ষিপ্ত জনতা যখন ভাঙচুর চালায় তখন তাদেরকে বাধা দিতে সেখানে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন বাগুইআটি থানার আইসি , এমনটাই জানালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। অন্যদিকে পুলিশ প্রশাসনের এই গাফিলতিতে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী । যার কারণে তিনি ডিজিকে এই বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়েছেন , এমনটাই জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম।

এবার ক্লোজ করা হল আইসিকে। এই সিদ্ধান্তে খুশি স্থানীয় বাসিন্দারা । ওই দুই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করবে সিআইডি । আপাতত তদন্তের দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়েছে তাদের হাতেই। অন্যদিকে এই ঘটনার মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র এখনও পর্যন্ত অধরা। কাজেই তাঁর আত্মীয়র বাড়িতেই চড়াও হয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা । তাঁরা তাদের পাড়ায় ঢোকার মুখ পর্যন্ত ব্যারিকেড দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন । পুলিশ কোনভাবেই সেখানে প্রবেশ না করতে পারে, এই বিষয়টি সুনিশ্চিত করেছেন তাঁরা। বিগত প্রায় ১৬ দিন ধরে পুলিশের কোনো রকম ভূমিকা ছিল না ওই দুই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে খুঁজে বের করার ক্ষেত্রে। তাই তাদের মৃত্যুর পরেও এলাকায় যাতে পুলিশ কোনোভাবেই ঢুকতে না পারে তাঁর ব্যবস্থা করেছেন স্থানীয়রাই।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories