Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

গোটা দেশের মধ্যে ফের সেরা পশ্চিমবঙ্গ, ধার কমানোর দিক থেকে প্রথম বাংলা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

বাংলার মুকুটে ফের এক নয়া পালক। আর্থিক ঋণের বোঝা কমানোর দিক থেকে, দেশের মধ্যে সেরা রাজ্যের স্বীকৃতি পেল পশ্চিমবঙ্গ। দেশের সার্বিক আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ পাবলিক ফিনান্স অ্যান্ড পলিসি’-র রিপোর্ট বলছে, ২০১৫-১৯ এই ৪ অর্থবর্ষে ধার কমানোর দিক থেকে গোটা দেশে সেরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন সরকার।

সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে এই রিপোর্ট। যেখানে বলা হয়েছে, ১৫-এর এপ্রিল থেকে ১৯-এর মার্চ টানা ধার কমানোর ক্ষেত্রে দেশের মধ্যে সেরা পারফরমেন্স পশ্চিমবঙ্গ সরকারের। পরবর্তীকালে ঋণ বেড়ে থাকলেও, তার পরিমাণ ১৫-১৬ অর্থবর্ষের থেকে কম। তবে পুরনো বিপুল দেনার দায় এতটাই বেশি যে, প্রতি ১০ টাকার মধ্যে দু’টাকা চলে যাচ্ছে ধারের সুদ মেটাতে। এনআইপিএফপি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের অধীনে থাকা একটি স্বশাসিত গবেষণা সংস্থা। যাদের রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রশংসার দাবিদার বাংলার সরকার।

মূলত এনআইপিএফপি সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প ও তহবিলের অর্থ বরাদ্দ, শুল্ক ব্যবস্থা, কর কাঠামোর মত জাতীয় অর্থনীতির নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি নিয়ে গবেষণা করে থাকে। আর সেই সংক্রান্ত রিপোর্টে জানা গিয়েছে, ঋণের বোঝা কমিয়ে গোটা দেশের মধ্যে সেরা বাংলা। মঙ্গলবার এই প্রসঙ্গে কুণাল ঘোষ বলেছেন, “রাজ্য সরকার বলেছে যে তৃণমূল যখন সরকারে ক্ষমতায় এসেছে, তখন থেকেই ঋণজালে জড়িয়ে। বাম সরকারের পরের পর ভুল আর্থিক নীতির জন্য। কেন্দ্রকেও মানতে হচ্ছে, তাদের রিপোর্টে বলতে হচ্ছে যে, ঋণ শোধের ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গ সফল। বারবার মুখ্যমন্ত্রী বলে এসেছেন এটা। পুরনো ঋণের জালে এতটাই জড়িয়ে রয়েছে বাংলা, যে ঋণ শোধ করেও লাভ নিতে পারছে না সরকার”।

এরই পাশাপাশি মোদী নেতৃত্বাধীন সরকারকে এক হাত নিয়েছেন কুণালবাবু। বলেছেন, “রাজ্যের আর্থিক কাঠামো অন্তঃসারশূন্য করে রেখে গিয়েছে বাম সরকার। আর বৈষম্যমূলক আচরণের জন্য বাংলা থেকে প্রাপ্য এক লক্ষ কোটি টাকার বেশি সেটা দিচ্ছে না কেন্দ্র। অতীতে পাপ করে গিয়েছে সিপিএম। আর এখন পাপ করছে বিজেপি”

বাংলার মানুষের ইচ্ছাতেই ১১ বছর আগে রাজ্য পরিচালনার দায়ভার কাঁধে তুলে নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন বাম জামানার বিপুল দেনার ভারও চেপেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের ঘাড়ে। বিগত এত বছর ধরে সেই সুদ সহ ঋণ মিটিয়ে চলেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। আর এই আবহে এনআইপিএফপি বলছে, ২০১৫-১৬ সাল অর্থবর্ষ থেকে দেশের যে পাঁচটি রাজ্য টানা চার অর্থবর্ষে জিডিপির তুলনায় ঋণ কমিয়েছে তাদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সেরা। পঞ্জাবের জিডিপির তুলনায় ঋণের পরিমাণ সেখানে বেড়েছে ১৫ শতাংশ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories