Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘পরব’-এ ‘চোর’ অপবাদ দেবযানীকে? লাইভে এসে সপাটে জবাব অভিনেত্রীর

1 min read

।।  প্রথম কলকাতা ।।

বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় মুখ দেবযানী চট্টোপাধ্যায়। বিভিন্ন বাংলা ধারাবাহিকে তাঁর অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন দর্শকেরা। তবে শুধু ছোট পর্দায় নয়। বড় পর্দাতেও তাঁর অভিনয় সমানভাবে দর্শকের দরবারে প্রশংসিত হয়। আর সেই জনপ্রিয় অভিনেত্রীকে পেতে হল ‘চোর’ অপবাদ! কারণ কী?

আসলে সকলেরই কম বেশি জানা অভিনয়ের পাশাপাশি অভিনেত্রীর রয়েছে একটি বুটিক ‘পরব’। প্রতিবছর পুজোর আগে আমজনতার পছন্দের কথা মাথায় রেখে শহরের বিভিন্ন জায়গায় তাঁর ডিজাইন করা কালেকশন নিয়ে এক্সসিবিশন করেন অভিনেত্রী। সম্প্রতি গড়িয়াহাট মহানির্বান রোডের ‘জুম টি-ও-গ্রাফি’ রেস্তোরাঁয় গত ৩ ও ৪ তারিখ হয়েছে ‘পরব’ এর এক্সিবিশন। আর সেখানেই ঘটল বিপত্তি। জুটল ‘চোর’ অপবাদ। তিনি নাকি অন্য এক ডিজাইনারের ডিজাইন চুরি করে পোশাক বানিয়েছেন। ওই প্রদর্শনীতে দেবযানী যে পোশাকটি পরেছিলেন, সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্যাগ করে তাঁকে অসম্মান করেছেন জনৈক সেই মহিলা ফ্যাশন ডিজাইনার।

মেহুলী গোস্বামী ঠাকুর নামের ওই জৈনিক ডিজাইনারের দাবি, দেবযানী তাঁর ডিজাইন চুরি করে সেটিকে নিজের নামে চালাচ্ছেন। এটা জানার পরেই মঙ্গলবার সকালে দেরি না করে লাইভে চলে আসেন যমুনা ঠাকি ধারাবাহিকের শাশুড়ি মা দেবযানী চট্টোপাধ্যায়। এমনিতে মাঝে মাঝে অনুরাগীদের সঙ্গে আড্ডা দিতে লাইভে আসেন অভিনেত্রী। তবে, এদিনের লাইভ সম্পূর্ণ অন্য ছিল। মঙ্গলবারের লাইভে আসার পিছনে ছিল, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা ডিজাইনার চুরির অভিযোগ প্রসঙ্গে আত্মপক্ষ সমর্থন, নিজের কথা জানানো। ঠিক কী বললেন অভিনেত্রী?

এদিক লাইভে এসে দেবযানী জানান, ‘তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব একটা অ্যাক্টিভ নন তাই তাঁর নজরে না পড়লেও বিষয়টি তাঁর এক বান্ধবীর নজরে পড়েছে। তাঁর থেকে তিনি জানতে পারেন। দেবযানীর কথায়, ‘আমাকে সকালে এক বন্ধু ফোন করে বললেন যে আমার ছবি পোস্ট করে কেউ একজন অনেক কিছু লিখেছেন। আমিও সেটি খুলে দেখলাম যে আমি সেদিন প্রদর্শনীতে যে পোশাকটি পরে গিয়েছিলাম সেটি নাকি তাঁর ডিজাইন থেকে চুরি করা। শুনে আমি সত্যিই খুব অবাক হয়ে গেলাম। ওনার দাবি এটা নাকি স্কার্ট। প্রথমত আমি যেটা পরেছিলাম সেটা স্কার্ট নয়। ওটা ধুতি।’

নেটনাগরিকদের বোঝানোর জন্য এদিন লাইভে নিজের পোশাকটি খুব ভালো করে খুলে দেখান অভিনেত্রী। বুঝিয়ে দেন এটি হাল ফ্যাশনের রেডিমেড ধুতি। যার সামনে আর পিছনে কুচির মতো ডিজাইন করা। একই সাথে এই ধরণের পোশাক বানানোর চিন্তা ভাবনা কোথা থেকে পেয়েছেন সেই প্রসঙ্গে অভিনেত্রী জানান, ‘ছোটবেলায় বাবা জ্যেঠুর ধুতি পরা দেখতে খুব ভালো লাগতো। সেই থেকেই এই ভাবনা চিন্তা। এছাড়াও ধুতির ওপর যে এমব্রয়ডারি করা সেটি সম্পূর্ণ তাঁর নিজস্ব চিন্তাভাবনা। সেখানে কী করে ওনার সঙ্গে ডিজাইনের মিল খুঁজে পেলেন?’ প্রশ্ন দেবযানীর।

প্রসঙ্গত, ওই মহিলাকে দেবযানী চেনেনও। তিনি অভিনেত্রীকে অপমান করলেও এদিন লাইভে তাঁর কাজের প্রশংশাই করেছেন দেবযানী। বলেছেন, ‘অনেকদিন আগে ওই মহিলার প্রদর্শনী থেকে সিল্কের কুর্তি কিনেছিলাম। কুর্তির উপর হাতের কাজটা খুব ভালো লেগেছিল। কিন্তু ওই রকম কুর্তি আমার আগেই ছিল। তবুও শুধু ডিজাইনটা ভালো লাগার জন্য কিনেছিলাম। তাহলে কী আমিও এবার বলব যে ওই একই রকম কুর্তি উনি আমার দেখেই চুরি করেছেন।’

যদিও জৈনিক ওই মহিলার পোস্টে অনেকেই চুরির দায়ে কটাক্ষ করেছেন অভিনেত্রীকে। টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হয়েও এমন অপমানিত হওয়ায় হতাশ হয়েছেন দেবযানী। তাঁর দাবি, ‘যাঁরা অপমান করছেন তাঁরা নিশ্চই আমায় চেনেন না।’

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories