Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বাইক চেপে লাদাখ যাত্রা, মাঝপথেই দুর্ঘটনায় মৃত্যু ঘটল বাংলার যুবকের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

বাইক চেপে দুর্গম পাহাড়ি পথে পাড়ি দেওয়ার নেশাই কেড়ে নিল প্রাণ। বাইক নিয়ে লাদাখ সফরে যাবার সময় মাঝপথেই প্রাণ হারাতে হল মধ্যমগ্রামের এক যুবককে। বয়স মাত্র ১৯ বছর। হিমাচল প্রদেশের মানালি থেকে এই দুঃসংবাদ এসে পৌঁছাল মধ্যমগ্রামে। ঘটনায় শোকের ছায়া এলাকায়। মধ্যমগ্রাম পুরসভার চেয়ারম্যান নিমাই ঘোষ জানান, “খুব দুঃখের ঘটনা। মাত্র ১৯ বছরের একজন এভাবে চলে গেল। ওর মা-বাবাকে সান্তনা দেওয়ার ভাষা নেই।”

এ বছরই উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেছেন সুখেন্দু মন্ডল। বাবা জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়াতে চাকরি করেন। দেরাদুনে তিনি কর্মরত। মধ্যমগ্রামের বাড়িতে মায়ের সঙ্গে থাকতেন সুখেন্দু। সচ্ছল পরিবার। একমাত্র ছেলের আবদারে ছেলেকে বাইক কিনে দিয়েছিলেন। প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন, বাইক পেয়ে সেটাই হয়ে উঠেছিল তার ধ্যান-জ্ঞান। বাইক নিয়ে মাঝে মাঝেই মধ্যমগ্রাম থেকে কলকাতায় চলে আসতেন।

হঠাৎ, তার মাথায় লাদাখ যাওয়ার পরিকল্পনা আসে। কিন্তু বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে নয়। একাই বাইকে চেপে লাদাখ যাওয়ার পরিকল্পনা করেন সুখেন্দু। ৩০শে আগস্ট রওনা দেন মধ্যমগ্রাম থেকে। গতকাল লে থানার পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে মধ্যমগ্রাম থানায় তার মৃত্যু সংবাদ জানানো হয়। মানালি থেকে লে যাবার পথে ঘটে এই দুর্ঘটনা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সুখেন্দুকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। তবে পথেই তার মৃত্যু হয়।

পুলিশ সূত্রের খবর, পাহাড়ি পথে বাইকের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ৭০ থেকে ৮০ কিমি। বেপরোয়া গতির কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে, পুলিশের অনুমান। লে-লাদাখের দুর্গম পার্বত্য এলাকায় সফর করা বহু অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় মানুষের স্বপ্ন। সেখানেই বাইক চেপে দুঃসাহসিক অভিযানের ঝুঁকি নিয়েছিলেন সুখেন্দু। কিন্তু এই অ্যাডভেঞ্চারের নেশাই শেষ পর্যন্ত প্রাণ কেড়ে নিল তার। তার অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories