Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বড় খবর :খুনের হুমকি প্রাক্তন NCB ডিরেক্টর সমীর ওয়াংখেড়েকে, কী লেখা ট্যুইটে?

1 min read

।।  প্রথম কলকাতা ।।

সমীর ওয়াংখেড়ে। মাদক মামলার জেরে সম্প্রতি যার নাম ছিল আলোচনার শীর্ষে। শাহরুখ পুত্র আরিয়ানের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রমান সাজিয়ে মাদক মামলায় ফাঁসানোর জেরে বিপাকে পড়তে হয়েছে কর্ডেলিয়া ক্রুজ মামলার প্রাক্তন জোনাল ডিরেক্টর সমীর ওয়াংখেড়েকে। শুরু হয়েছিল নানান বিতর্ক।এবার সেই সমীর ওয়াংখেড়েকে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওয়া হচ্ছে প্রাণনাশের হুমকি।পুলিশ সূত্রে খবর, গত ১৪ আগস্ট আমান নামের এক ট্যুইটার ইউজার সমীর ওয়াংখেড়েকে মেসেজ করে লেখেন, ‘তুমি জানো তুমি কি করেছো? সবকিছুর হিসেব তোমাকে দিতে হবে। তোমাকে শেষ করে দেব।’ এরপরই প্রাক্তন এনসিবি প্রধান গোরেগাঁও থানার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা এফআইআর দায়ের করার প্রস্তুতি নেয়। গত বৃহস্পতিবার সমীর ওয়াংখেড়ের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানায়, “অ্যাকাউন্টটির শূন্য ফলোয়ার ছিল এবং সন্দেহ করা হচ্ছে ওয়াংখেড়েকে হুমকি দেওয়ার উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছে। তবে ইতিমধ্যে সাইবার সাইটের সাহায্যে তাঁকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।প্রসঙ্গত, NCB এর মুম্বাই অফিসের প্রাক্তন জোনাল ডিরেক্টর ওয়াংখেড়ে, ২০২১ সালের অক্টোবরে মুম্বাই ক্রুজে মাদকবিরোধী এজেন্সির হাই-প্রোফাইল অভিযানের পরে লাইমলাইটে এসেছিলেন যার পরে এজেন্সি অভিনেতা শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান এবং অন্যান্য ১৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। যদিও পরবর্তীকালে যাবতীয় তদন্ত শেষে আরিয়ানকে ক্লিনচিট দিয়েছিলেন এনসিবি। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর মাদক মামলার তদন্তের দায়িত্বে আসেন এই প্রাক্তন এনসিবি কর্তা।

আরো পড়ুন : জল্পনায় শিলমোহর, স্টার জলসার দূর্গা হচ্ছেন সোনামণি, মহিষাসুর রূপে কে?

প্রসঙ্গত, আরিয়ান ক্লিনচিট পাওয়ার পরই বিপাকে পড়েছেন সমীর ওয়াংখেড়ে। তাঁর বিরুদ্ধে সঠিকভাবে তদন্ত না করার অভিযোগ উঠেছিল। এ প্রসঙ্গে বেশ কিছু প্রশ্ন তোলা হয়েছিল,যেমন, কর্ডেলিয়া ক্রুজে আরিয়ান-সহ যাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তাঁদের শারীরিক পরীক্ষা কেন করা হয়নি? ওয়াংখেড়ের নেতৃত্বে এনসিবি অফিসাররা যখন ক্রুজে হানা দিয়েছিলেন সেই ঘটনা রেকর্ড কেন করা হয়নি? আরিয়ানের কাছে যদি মাদক না পাওয়া গিয়ে থাকে তাহলে কীসের ভিত্তিতে তাঁর জামিনের বিরোধিতা করা হয়েছে? এমন কিছু প্রশ্নের উত্তরই নাকি জানতে চাইছে বিশেষ তদন্তকারী দল। আর তাতেই নিশানায় হাই প্রোফাইল মাদক মামলার প্রাক্তন তদন্তকারী অফিসার। এদিকে আবার শোনা গিয়েছিল, সিটের তদন্তকারী অফিসারদের নাকি আরিয়ান জানিয়েছেন আমেরিকায় থাকার সময় তিনি গাঁজা সেবন করেছিলেন। কিন্তু তাতে বিশেষ লাভ হয়নি। কর্ডেলিয়া ক্রুজে যেন কোনও মাদক না থাকে তাও নাকি বন্ধু আরবাজকে জানিয়ে দিয়েছিলেন আরিয়ান।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories