Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

জন্মাষ্টমীর ৫৬ ভোগেই তুষ্ট শ্রীকৃষ্ণ, এর নেপথ্যের কাহিনীটি কি জানা আছে ?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি হল ভাদ্র মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী। এই দিনটিকে জন্মাষ্টমী হিসেবেই পালন করা হয়ে থাকে । চলতি বছরে আসন্ন জন্মাষ্টমী। অন্যান্য পুজো-পার্বণের মতোই জন্মাষ্টমীও পালন করা হয় কিছু রীতি-নীতি মেনে। এই জন্মাষ্টমীর বেশ কিছু রীতির মধ্যে অন্যতম একটি এবং বহু কাল ধরে প্রচলিত রীতি হল ৫৬ ভোগ। অর্থাৎ ভগবান শ্রীকৃষ্ণের উদ্দেশ্যে ৫৬ ভোগ নিবেদন করা হয়। কিন্তু কেন এই নিয়ম? কী কারনে ৫৬ রকমের পদ সাজিয়ে দেওয়া হয় শ্রীকৃষ্ণের সামনে। এর পেছনেও রয়েছে একটি পৌরাণিক কাহিনী।

শোনা যায় একবার ভগবান ইন্দ্র তাঁর ভক্তদের উপর বেজায় ক্ষুব্ধ হন। যার ফল স্বরূপ অঝোরে বৃষ্টি শুরু হয়। সে বৃষ্টি আর কিছুতেই থামে না । এমন বৃষ্টি চলতে থাকে যার ফলে বন্যা আসার মত পরিস্থিতি। কিন্তু তাতেও থামলেন না ভগবান ইন্দ্র । অবশেষে ভক্তদেরকে প্রবল ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করার জন্য আসরে নামতে হয় ভগবান শ্রীকৃষ্ণকে। গোকুলবাসী যখন একেবারেই নিরুপায় তখন তাদের বাঁচাতে এগিয়ে আসলেন তিনি । সকল গোকুলবাসী তাঁর আশ্রয়ে এল কারণ তিনি নিজের আঙ্গুলের ডগায় তুলে নিয়েছিলেন গোবর্ধন পর্বতকে । সেই পর্বতের নিচেই আশ্রয় নিল গ্রামবাসী সহ সকল পশু-পাখি।

ওই অঝোরে বৃষ্টির ফলে টানা ৭ দিন শ্রীকৃষ্ণ একভাবে নিজের আঙ্গুলের ডগায় গোবর্ধন পর্বতকে তুলে ধরে দাঁড়িয়ে থাকেন। আর সেই পর্বতের নিচে নিরাপদে রাখেন গ্রামবাসীদের। বিষয়টি বুঝতে পারেন ভগবান ইন্দ্র। শান্ত হন তিনি। আর তারপর ধীরে ধীরে কমতে থাকে বৃষ্টি। গ্রাম থেকে নামতে থাকে বন্যার জল। পরিস্থিতি পুনরায় স্বাভাবিক হয়। শোনা যায় ওই সাত দিন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ কোনরকম খাবার গ্রহণ করেননি। বৃষ্টি থামার পরে মা যশোদা তাকে দিনে নয় বার করে খাওয়াতেন। এই পৌরাণিক গল্পকে কেন্দ্র করেই ৫৬ ভোগের নিয়ম শুরু হয় এবং এখনো পর্যন্ত কৃষ্ণ পুজোতে ভোগ হিসেবে তাকে উৎসর্গ করা হয় ৫৬ টি খাবারের পদ।

এই ৫৬ ভোগে কী কী থাকে জানেন ?

এই ৫৬ ভাগে সাধারণত থাকে ঘোল, ক্ষীর, বাদাম দুধ, কাজু ,কাঠবাদাম, পেস্তা ,রসগোল্লা ,টিক্কি, লাড্ডু, রাবড়ি, মাঠরি, জিলিপি, মোহনভোগ, মালপোয়া, চাটনি, খিচুড়ি, পিঠে , কয়েক রকমের তরকারি, সবজির পুর দেওয়া কচুরি, সবুজ তরকারি, ভাত, ডাল, দই, পাপড় এবং ঘেওয়ার।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories