Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘ঐক্যবদ্ধ-ধর্মনিরপেক্ষ-গণতান্ত্রিক ভারতবর্ষ’, আগামী ২৫ বছরের জন্য কী বার্তা ফিরহাদের?

।। প্রথম কলকাতা।।

ধর্মনিরপেক্ষ ভারতবর্ষে বসবাস প্রায় ১৩০ কোটি মানুষের । এই ভারত ১৯৪৭ সালে ১৫ই আগস্ট স্বাধীনতার আলো দেখতে পেয়েছিল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হাত ধরে। তারপর থেকে প্রত্যেক বছর ১৫ই আগস্ট দিনটিকে স্বাধীন ভারতে স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালন করে আসা হচ্ছে। চলতি বছরেও তার কোন ব্যতিক্রম ঘটেনি বরং বিগত দুটি বছরে করোনা সংক্রমণের কারণে একাধিক কর্মসূচি সঠিকভাবে পালন না করতে পারায় এই বছর আরও ভালোভাবে আয়োজন করা হয়েছে স্বাধীনতা দিবসের। সারা দেশ জুড়ে কেন্দ্র সরকারের হর ঘর তিরঙ্গা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

একই রকম ভাবে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় সদর্পে পালিত হচ্ছে স্বাধীনতা দিবস। কলকাতা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের হেডকোয়ার্টারে ভারতবর্ষের স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করলেন কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। একই সঙ্গে তিনি বার্তা দিলেন রাজ্যবাসীদের উদ্দেশ্যে। তাঁর কথায়, যে দেশ আমরা আমাদের পূর্বপুরুষের কাছ থেকে আশীর্বাদ স্বরূপ পেয়েছি তার আজ ৭৫ বছর পূর্তি। এই ঐক্যবদ্ধ, ধর্মনিরপেক্ষ এবং গণতান্ত্রিক দেশকে আগামীতে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। সারা বিশ্বের মধ্যে উন্নত দেশগুলির মধ্যে নাম থাকবে ভারতবর্ষের।

আরো পড়ুন : আদিবাসী শিল্পীদের সঙ্গে নাচের তালে পা মেলালেন মুখ্যমন্ত্রী

একইসঙ্গে তিনি বলেন, এই দেশে যারা ধর্ম নিয়ে ভেদাভেদ করবে কিংবা জাত পাত নিয়ে ঐক্য ভাঙ্গার চেষ্টা করবে তাদের বিরোধিতা করা হবে। গণতন্ত্রকে ক্ষুন্ন করলে প্রতিবাদ করা হবে। এইভাবেই আগামী ২৫ বছরে দেশকে উন্নতির শিখরে নিয়ে যাওয়া হবে এবং ভারতবর্ষের স্বাধীনতার ১০০ বছর পূর্তিতে আগামী প্রজন্মকে উপহার দেওয়া হবে ভালোবাসার দেশ, উন্নয়নের দেশ, প্রগতির দেশ এক কথায় স্বপ্নের ভারতবর্ষ। একই সঙ্গে তিনি এদিন শহর কলকাতার কথা উল্লেখ করেন। এই শহরকে পূর্বের তুলনায় আরও উন্নত করার অঙ্গীকার করেছিলেন তিনি। সেই কাজ এখনও পর্যন্ত চলছে। পূর্বের তুলনায় কলকাতা শহরের বিভিন্ন সমস্যাগুলির অধিকাংশই সমাধান হয়েছে।

আগামী দিনে এই ভাবেই কলকাতা শহরকে উন্নত থেকে উন্নততর পর্যায়ের নিয়ে যাবে কেএমসি। এমনটাই এদিন জানালেন তিনি। তাঁর কথায়, শুধু কলকাতার নাগরিকরাই নয় যারা বাইরে থেকে আসেন তাঁরাও কলকাতার এই পরিবর্তনকে স্পষ্ট দেখতে পান। এই ধরনের কলকাতাই স্বপ্ন ছিল কলকাতাবাসীর । বর্তমানে বিভিন্ন পরিষেবা সে জল , বিদ্যুৎ কিংবা অন্যান্য পরিষেবা যাই হোক না কেন কলকাতা পুরসভার তরফ থেকে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে মানুষের কাছে। এই ভাবেই মানুষকে পাশে রেখে কলকাতা পৌরসভা তাদের কাজ করে যাবে এবং শহরকে আরও উন্নত করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে উপহার দেবে বলে দাবি করলেন তিনি।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories