Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Baguiati: বহুতলের নিচে পড়ে রক্তাক্ত যুবতীর দেহ, রহস্য উদঘাটনে তদন্তে পুলিশ

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

রশিকা জৈন হত্যাকাণ্ডের ছায়া এবার বাগুইআটিতে। বহু তল থেকে নিচে পড়ে মৃত্যু এক যুবতীর । আর এই রহস্য মৃত্যুর ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে তাঁর সঙ্গীর বিরুদ্ধে । মাসখানেক আগে ওই যুবকের সঙ্গে রেজিস্ট্রি হয় ওই যুবতীর। এরপর তাঁরা দুজনে একই সঙ্গে থাকতেন বাগুইআটির আমবাগান এলাকার একটি আবাসনে। তাদের মধ্যে প্রায়ই অশান্তি চলতো বলে জানা গিয়েছে। গতকালও তার ব্যতিক্রম ছিল না। এরপর আচমকাই । রাতের দিকে প্রচন্ড শব্দ শুনতে পেয়ে বাইরে বেরিয়ে আসেন স্থানীয়রা ।

আর তারপর দেখা যায় বহু তলের নিচে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন ওই যুবতীর দেহ। আটক করা হয় যুবককে।নিহত যুবতীর নাম তিতাস নন্দী। বছর ২৮ এর তিতাসের সঙ্গে একমাস আগে কৌস্তব সরকারের রেজিস্ট্রি হয়। এরপর তাঁরা একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন আমতলার ওই আবাসনের গ্রাউন্ড ফ্লোরে। তাঁর ওপরের তলাতেই থাকতেন তিতাসের মাসি রঞ্জিতা চৌধুরী। তিনি জানান, গতকাল সকাল থেকে প্রায় সারাদিনই তাদের দুজনের মধ্যে অশান্তি চলে । চিৎকার চেঁচামেচি শুনতে পান প্রতিবেশীরাও ।

Howrah: চটুল গানে তুমুল নাচ শিক্ষক- শিক্ষিকাদের, স্কুল কর্তৃপক্ষকে শোকজ শিক্ষা দফতরের

তারপর দুপুরের দিকে তিতাস নিজের মা বাবার কাছে গিয়েছিল। পরবর্তীতে বাড়িতে ফিরে আসার পর আবারও তাদের মধ্যে ঝামেলা বাঁধে। এরপর রাত পৌনে দশটা নাগাদ তিতাস এবং কৌস্তব ছাদে ওঠে বলে জানান তিনি।কিছুক্ষণ বাদেই জোরালো শব্দ শুনতে পান। তিনি ঘর থেকে বেরিয়ে আসার সময় দেখতে পান সিঁড়ি থেকে খুব দ্রুত গতিতে নেমে আসছে কৌস্তব। তাকে ধরার চেষ্টা করলে সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে । তবে পরবর্তীতে আবাসনের নিচে থাকা অন্যান্য বাসিন্দারা আটক করে তাকে। তিতাসের মাসির, অভিযোগ প্রতিনিয়ত অশান্তির জেরেই ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রাতে কৌস্তবই তিতাসকে ছাদ থেকে ঠেলে ফেলে দেয়। আর তারপর সেখান থেকে পালিয়ে যাবার চেষ্টা করে।

খবর দেওয়া হয় নাগেরবাজার থানায়। পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে এবং ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় আরজিকর হাসপাতালে।তিতাসের পরিবারে তরফ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয় কৌস্তবের বিরুদ্ধে । এই ঘটনা তাঁর ভূমিকা কী ছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আদৌ সে ছাদ থেকে ঠেলে ফেলে দিয়েছে নাকি অসাবধানতাবশত নিজেই পড়ে গিয়েছিল তিতাস? এই মুহূর্তে একাধিক প্রশ্ন উঠছে ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে । কাজেই এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার জন্যই তদন্ত শুরু করেছে নাগেরবাজার থানার পুলিশ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories