Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ইন্দো-চীন সীমান্তে দেশের শেষ গ্রাম, “হর ঘর তেরঙা” প্রচারে “মানা” গ্রামে উড়বে জাতীয় পতাকা

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।


৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের শুরু হল’ হর ঘর তেরঙ্গা’ অভিযান দিয়ে। ‘হর ঘর তেরঙা’ কর্মসূচি সফল করতে কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়েছে কেন্দ্র। দেশ সহ রাজ্যজুড়ে একাধিক জায়গায় বিক্রি হচ্ছে জাতীয় পতাকা। এই কর্মসূচিতে এবার ভারতের শেষ গ্রাম অর্থাৎ ভারত- চীন সীমান্তের মানা গ্রামেও উড়বে জাতীয় পতাকা। মানা গ্রামটি উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলায়। গ্রামটি দেশের একদম শেষ প্রান্তে। ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে মানা গ্রামে তাই জোর প্রস্তুতি চলছে।

”দেবভূমি” হিসেবে উত্তরাখণ্ডের পরিচিতি। বদ্রিনাথের দর্শন সেরে মাত্র ৩ কিলোমিটার উপরে উঠলেই পৌঁছে যাওয়া যাবে মানা গ্রামে। অলকানন্দার তীরে প্রকৃতি যেন পরম যত্নে এই গ্রামটি সাজিয়ে তুলেছে। এই গ্রামটিতে প্রায় ২৫০ পরিবারের বাস। গ্রামের জনসংখ্যা প্রায় ৬০০- র কাছাকাছি। ভারতের এই শেষ গ্রাম মানাতেও যাতে দেশের ৭৫তম স্বাধীনতার উদযাপনের আলো ছড়িয়ে যায়, তার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। উত্তরাখণ্ডের বিজেপির রাজ্য সভাপতি মহেন্দ্র ভাট মানা গ্রামের প্রতিটি কোনায় ভারতের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের দায়িত্বে রয়েছেন। গেরুয়া শিবিরের প্রত্যেক কর্মীকে পতাকা উত্তোলনের বার্তা দেওয়া হয়েছে।

৩১ শে জুলাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ‘মন কি বাত” অনুষ্ঠানে “হর ঘর তেরঙা” কর্মসূচি নিয়ে কথা বলেন। সকল দেশবাসীকে এই অভিযানে সামিল হওয়ার আবেদন জানান তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় দেশবাসীকে নিজেদের প্রোফাইল পিকচারে জাতীয় পতাকার ছবি লাগানোর অনুরোধ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এই কর্মসূচিতে প্রায় ২০ লক্ষ বাড়িতে জাতীয় পতাকা উড়বে। স্বাধীনতা দিবসের আগে জোরকদমে চলছে সেই প্রস্তুতি।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories