Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘এসব হাস্যকর কথাবার্তা’, মোদী-মমতার সেটিংয়ের অভিযোগ খারিজ করলেন কুণাল

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

আজ দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, দুজনের মধ্যে প্রায় ৪০ মিনিট ধরে বৈঠক চলেছে। তবে, বৈঠকে তাঁদের কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে? সে ব্যাপারে তাঁরা কেউ-ই মুখ খোলেননি সংবাদ মাধ্যমে। নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে যখন তোলপাড় চলছে রাজ্যজুড়ে। সে সময়েই কেন হঠাৎ দিল্লি সফর করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল- বিজেপির মধ্যে গোপন আঁতাতের অভিযোগ করেছে কংগ্রেস, সিপিএম সহ বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতে এবার নরেন্দ্র মোদী ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক নিয়ে মুখ খুললেন তৃণমূল মুখপাত্র মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

তৃণমূল- বিজেপির মধ্যে গোপন আঁতাতের অভিযোগ প্রসঙ্গে তৃণমূল মুখপাত্র কুনাল ঘোষ জানান, “এসব হাস্যকর কথাবার্তা। দেশের প্রধানমন্ত্রী আর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিশেষ করে যে কেন্দ্র সরকার এত বৈষম্য করছে, এত বঞ্চনা করছে, বাংলার এত পাওনা, সরকার চেষ্টা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রী চেষ্টা করেছেন, তা সত্ত্বেও দেওয়া হচ্ছে না। সেই সব বিষয়গুলো বলবেন। এটার সঙ্গে অন্য ব্যাখ্যার কী সম্পর্ক আছে? দিনের শেষে বিধানসভা নির্বাচন, উপনির্বাচন, পুর নির্বাচন- যেখানে যা নির্বাচন, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই, বিজেপিকে হারানো, সেটাতো তৃণমূল কংগ্রেসই করছে।”

“বিজেপি প্রতিহিংসার রাজনীতি করছে। আমরা মানুষের দরবারে যাচ্ছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেনাপতিত্বে বিজেপিকে হারানো হচ্ছে। সেখানে এই ধরনের কথাগুলি যারা বলছেন, তাঁরা চরম বিচ্ছিন্ন, কোনো জনভিত্তি নেই, রাজনৈতিকভাবে দিশাহীন, কর্মসূচি নেই। এদের কাছে দেখা না করলেও একটা ব্যাখ্যা দিতে হবে, দেখা হলেও একটা ব্যাখ্যা দিতে হবে। এরা রাজনৈতিকভাবে সম্পূর্ণ দিশাহীন।”

কুণাল ঘোষ আরও জানান, “দেশের প্রধানমন্ত্রী ও বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর নির্দিষ্ট কিছু বাংলার স্বার্থে দেখা হওয়া খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলা ভালো কাজ করছে, এক নম্বরে। অথচ টাকা আটকানো হচ্ছে। সেই জায়গায় বাংলার স্বার্থে যদি মুখ্যমন্ত্রী কথা বলেন। অতীতে কি হয়নি? আগে জ্যোতিবাবু, বুদ্ধবাবু কি কথা বলতে যান নি? কেন্দ্রে একটা সরকার, রাজ্যের একটা সরকার। অন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা কি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন না?”

“একেবারে রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া, দিশাহীন, জন ভিত্তিহীন কিছু বলার নেই। তৃণমূল একমাত্র দল, যারা বিজেপির সঙ্গে লড়ছে। বাংলার বিধানসভা নির্বাচন, উপনির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে চোখে চোখ রেখে লড়াই করছে কে? বিজেপিকে হারাচ্ছে কে? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেনাপতিত্বে তৃণমূল কংগ্রেস লড়ছে। আবার একটা ভোট আসতে দিন। বাংলার বুকে বিজেপিকে হারানোর দায়িত্ব তৃণমূল কংগ্রেসই পালন করবে। তখন কোথায় থাকবে এসব গাল গল্প।”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories