Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

সর্প দংশনে দাদার মৃত্যু, শেষকৃত্যে গ্রামের বাড়িতে এসে সাপের ছোবলে প্রাণ হারালেন ভাই

।। প্রথম কলকাতা।।

সর্প দংশনে দাদার মৃত্যু ঘটেছে। দাদার শেষকৃত্যে যোগ দিতে গ্রামের বাড়িতে এসেছিলেন ভাই। রাতে ঘুমোনোর সময় ভাইকেও কামড়ালো সাপ। হাসপাতালে নিয়ে গিয়েও বাঁচানো গেল না ভাইকে। সাপের কামড়ে সেই পরিবারের এক আত্মীয়ও হাসপাতালে ভর্তি আশঙ্কাজনক অবস্থায়। এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে গেল উত্তরপ্রদেশের ভবানীপুরে।স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, উত্তরপ্রদেশের ভবানীপুর গ্রামের বাসিন্দা অরবিন্দ মিশ্রকে কিছুদিন আগে সাপ কামড়ে ছিল তাঁকে। তৎক্ষণাৎ মৃত্যু হয় ৩৮ বছরের যুবক অরবিন্দ মিশ্রের।

দাদার মৃত্যুর খবর পেয়ে শেষকৃত্যে যোগ দিতে গ্রামে এসেছিলেন গোবিন্দ মিশ্র। ২২ বছর বয়স্ক গোবিন্দ মিশ্র থাকেন লুধিয়ানাতে। গ্রামের বাড়িতে রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় তাঁকেও দংশন করে সাপ। তাঁরও মৃত্যু ঘটে। আবার, এই পরিবারের এক আত্মীয় চন্দ্রশেখর পান্ডেকেও সাপ কামড়ায়। তাঁকেও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন চন্দ্রশেখর পান্ডে।এই ঘটনার পর স্বাভাবিকভাবে গ্রাম জুড়ে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

স্থানীয় বিধায়ক কৈলাসনাথ শুক্লা পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন। তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। স্বাস্থ্যকর্মী, প্রশাসনিক কর্মীরা গ্রাম পরিদর্শন করেছেন। গ্রামে সাপের উপদ্রব যাতে বন্ধ করা যায়, সেদিকে নজর রাখতে শুরু করেছে প্রশাসন। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গোবিন্দা মিশ্র ও চন্দ্রশেখর পান্ডে দুজনেই শেষকৃত্যে যোগ দিতে লুধিয়ানা থেকে এসেছিলেন। সাপের ছোবলে মৃত্যু ঘটেছে গোবিন্দ মিশ্রের। চন্দ্রশেখর পান্ডে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন, তাঁর অবস্থা আশঙ্কা জনক।

প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে লক্ষাধিক মানুষের মৃত্যু হয় সাপের কামড়ে। এশিয়া ও আফ্রিকার বেশ কিছু দেশে বিষধর সাপের পাদুর্ভাব খুব বেশি। যার মধ্যে অন্যতম দেশ হল ভারত। দেশের একাধিক রাজ্যে বারবার সর্প দংশনে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। যার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে উড়িষ্যা ও অন্ধপ্রদেশ। অন্যান্য রাজ্যেও সর্প দংশনের ঘটনা বারবার ঘটে। বিশেষত বর্ষাকালে সাপের উপদ্রব খুব বাড়ে। দেশের বহু গ্রামীণ এলাকার মানুষ সর্প দংশনের ঝুঁকির মধ্যেই জীবন যাপন করছেন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories