Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আজ দেশজুড়ে কংগ্রেসের বিক্ষোভ, প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি ঘেরাও অভিযান কংগ্রেসের

।।প্রথম কলকাতা।।


মূল্যবৃদ্ধি থেকে বেকারত্ব বৃদ্ধি সহ একাধিক ইস্যুতে আজ দেশজুড়ে কংগ্রেসের বিক্ষোভ কর্মসূচি। দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ঘেরাও অভিযান ও রাষ্ট্রপতি ভবন চলো কর্মসূচি পালনের ডাক কংগ্রেসের। অভিযানে অংশ নেবেন কংগ্রেসের লোকসভা ও রাজ্যসভার সাংসদরা। শুক্রবার সকাল থেকেই দলের সদর দফতরের সামনে জমায়েত করেছেন নেতাকর্মীরা। সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ দলীয় অফিসে পৌঁছান রাহুল গান্ধী। দিল্লি পুলিশের তরফে মিছিলের অনুমতি দেওয়া হয়নি। কোনওরকম বিশৃঙ্খলা এড়াতে দিল্লি জুড়ে কড়া পুলিশি নিরাপত্তা। যন্তরমন্তর বাদে নয়া দিল্লিতে জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা।এই বিক্ষোভ রুখতে দিল্লি আকবর রোড মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার চাদরে ।

বিভিন্ন রাজ্যের কংগ্রেস নেতৃত্ব কর্মীরাও নিজেদের রাজ্যে বিক্ষোভ দেখাবেন বলে জানিয়েছেন।গত সপ্তাহে কংগ্রেসের তরফে এই বিক্ষোভ কর্মসূচির কথা জানানো হয়েছিল। কংগ্রেস কর্মীদের এই বিক্ষোভে শামিল হওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন শীর্ষ নেতৃত্বরা। ২ রা আগস্ট ফের এই কর্মসূচিকে সফল করার জন্য বৈঠকে বসেন কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। সংসদ থেকেই রাষ্ট্রপতি ভবন পর্যন্ত পায়ে হেঁটে যাবেন কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা। এমনটাই পরিকল্পনা নেতৃত্বদের।কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কোমর বেঁধে আন্দোলনে নেমেছে কংগ্রেস।

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলা নিয়ে যত চাপ বাড়ছে কংগ্রেসের উপর, তত নানা ইস্যুতে বিজেপিকে নিশানা করতে ছাড়ছেন না কংগ্রেস নেতৃত্বরা। সংসদে বাদল অধিবেশন শুরুর পর থেকেই মূল্যবৃদ্ধির ইস্যুর নিয়ে আন্দোলনে নেমেছে কংগ্রেস। বৃহস্পতিবারও লোকসভা ও রাজ্যসভা মুলতুবি হয়েছে চরম হট্টগোলের কারণে। বিরোধীদের রুখতে ইডিকে ব্যবহার করছে কেন্দ্র। এমনই অভিযোগ করে কংগ্রেস। এদিন সাংবাদিক বৈঠকে রাহুল গান্ধী বলেন, “দেশে গণতন্ত্রের মৃত্যু হয়েছে। সংসদে বিরোধীদের কন্ঠরোধ করা হচ্ছে।” রাহুল গান্ধীর এই মন্তব্যের পর আজকে কংগ্রেসের আন্দোলন আরও জোরদার হবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories