Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কেন শরীরে ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি হয়? করোনা কালে অবশ্যই জানুন

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ভারতে আবার ঊর্ধ্বমুখী করোনা গ্রাফ, যার কারণে চিন্তিত বিশেষজ্ঞ মহল। ইতিমধ্যেই প্রায় দুই বছর ধরে কোরোনা ঝড় সামলাতে হয়েছে। তার উপর নতুন করে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছেন মাঙ্কি পক্স। তাই এই মুহূর্তে সুস্থ থাকা অত্যন্ত জরুরি। পাশাপাশি মেনে চলতে হবে সমস্ত রকম স্বাস্থ্যবিধি। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধরে রাখতে এবং অন্যান্য রোগ থেকে শরীরকে রক্ষা করতে ভিটামিন ডি গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। এটি তেলে দ্রবণীয় একটি ভিটামিন। যার রাসায়নিক নাম ক্যালসিফেরল।

এই ভিটামিন পাওয়া যায় মূলত উদ্ভিজ্জ তেল, বাঁধাকপি, কড কিংবা হ্যালিবাট লিভার অয়েল, ডিম, মাখন, দুধ প্রভৃতি থেকে। এই ভিটামিন ক্ষুদ্রান্ত্র এ ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস শোষণে সাহায্য করে। পাশাপাশি দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধি, পুষ্টি এবং হাড় ভালো রাখতে এর ভূমিকা যথেষ্ট।

ভিটামিন ডি-এর অভাবে শরীরে নানা ধরনের সমস্যা যেমন- ক্লান্তি, হাড়ের ব্যথা, পেশির দুর্বলতা, পেশিতে ব্যথা, মেজাজ পরিবর্তন এবং পেশিতে ক্র্যাম্প শুরু হয়। খাদ্যাভ্যাস এবং সূর্যালোকের সংস্পর্শে আসার কারণে আমাদের শরীর স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিটামিন ডি পূরণ করে।

•অনেকেই আছেন যারা সবসময় একটু এসির মধ্যে থাকতে পছন্দ করেন। শরীরকে প্রায়ই সূর্যালোক থেকে বাঁচিয়ে রাখেন। কিন্তু ভিটামিন ডি-এর জন্য সূর্যালোকের প্রয়োজন। শরীর যদি পর্যাপ্ত সূর্যালোক না পায় তাহলে শরীরে এই প্রয়োজনীয় ভিটামিনের ঘাটতি দেখা দেয়। ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি মেটাতে ব্রোকলি, ডিম, বাদাম, বীজ এবং লেবু খাওয়া উচিত।

•স্থূলতা ভিটামিন ডি এর অভাবের একটি কারণ। স্থূলতা বৃদ্ধি শরীরকে নানাভাবে অসুস্থ করে তোলে। শরীরের চর্বি বৃদ্ধির কারণে এই প্রয়োজনীয় ভিটামিনের ঘাটতি শুরু হয়। অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যে স্থূল ব্যক্তিদের মধ্যে ভিটামিন ডি ৫০ শতাংশ কম থাকে।

•ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি হলে শরীরে ভিটামিন ডি-এর অভাব দেখা দেয়। ম্যাগনেসিয়াম ভিটামিন ডি সক্রিয় করতে সাহায্য করে। ন্যাশনাল লাইব্রেরি অফ মেডিসিন অনুসারে, ভিটামিন ডি বিপাককারী সমস্ত এনজাইমের জন্য ম্যাগনেসিয়াম প্রয়োজন।

•বোরনের অভাব ভিটামিন ডি-এর উপর প্রভাব ফেলে। বোরন একটি রাসায়নিক উপাদান যা ভিটামিন ডি-এর সাথে কাজ করে। ভিটামিন ডি ক্যালসিয়াম শোষণ এবং হাড়ের রক্ষণাবেক্ষণে সাহায্য করে।

•শরীরে ভিটামিন ডি-এর অভাবের জন্য ভিটামিন কে-এর অভাবও দায়ী। ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি মেটাতে ডিম, মাংস, মাছ ও দুধ খাওয়া উচিত।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories