Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বয়স্কদের তুলনায় মদ্যপানে মারাত্মক ঝুঁকির মুখে তরুণরা ! প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট

।। প্রথম কলকাতা ।।

অ্যালকোহল সেবন মানব শরীরের পক্ষে খারাপ না ভালো এই নিয়ে নানান সময়ে নানান ধরনের গবেষণা চলেছে । অ্যালকোহল জাতীয় পানীয় যে শরীরের পক্ষে ভালো নয় তা বহুবার প্রমাণিত হয়েছে। আবার কিছু কিছু গবেষণা দাবি করেছে সামান্য পরিমাণে অ্যালকোহল সেবন শরীরের জন্য স্বাস্থ্যকর । এবার সারা বিশ্ব জুড়ে সমীক্ষা চালিয়ে গবেষকরা দাবি করলেন, বয়স্কদের তুলনায় তরুণরা অ্যালকোহল সেবনের কারণে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্মুখীন হচ্ছেন।

এই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে শুক্রবার দ্যা ল্যানসেট জার্নালে। এটি এই প্রথম এমন একটি রিপোর্ট যেখানে সারা বিশ্ব জুড়ে ভৌগোলিক অবস্থা, বয়স এবং লিঙ্গের ভিত্তিতে অ্যালকোহলের প্রভাব সম্পর্কিত গবেষণা চালানো হয়েছে।

এই গবেষণাপত্র অনুযায়ী ১৫ থেকে ৩৯ বছর বয়সী পুরুষরা অ্যালকোহল সেবনের সর্বাধিক ক্ষতিকারক ঝুঁকিতে রয়েছেন। পাশাপাশি এও বলা হয়েছে ,৪০ কিংবা তার বেশি বয়সী ব্যক্তিরা সামান্য পরিমাণে অ্যালকোহল সেবনের সুবিধা নিতে পারেন । তবে প্রতিদিন মাত্র ১ থেকে ২টি স্ট্যান্ডার্ড পানীয়র মধ্যে থাকতে হবে। যা স্ট্রোক, ডায়াবেটিসের মত ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

প্রায় ২০৪টি দেশের উপর পর্যবেক্ষণ করে দেখা গিয়েছে, ২০২০ সালে প্রায় ১.৩৪ মিলিয়ন মানুষ ক্ষতিকারক পরিমাণে অ্যালকোহল সেবন করেছেন। এছাড়াও মোটর গাড়ি দুর্ঘটনা, আত্মহত্যা,নরহত্যার মত বেশিরভাগ ঘটনার ৬০ শতাংশের পিছনে থাকে ১৫ থেকে ৩৯ বছর বয়সী ব্যক্তিরা এবং এর সাথে অ্যালকোহল সেবনের বিষয়টিও জড়িয়ে রয়েছে। এক্ষেত্রে ইউএস ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটনের ইনস্টিটিউট ফর হেলথ ম্যাট্রিক্স অ্যান্ড ইভালিউশনের অধ্যাপক এবং এই গবেষণার সিনিয়র লেখক এমানুয়েলা গাকিডু জানিয়েছেন, এই গবেষণার মাধ্যমে বার্তা দেওয়া হয়েছে তরুণদের মদ্যপান করা উচিত নয় । তবে বয়স্ক ব্যক্তিরা সামান্য পরিমাণে মদ্যপান করলে উপকৃত হতে পারেন।

এই গবেষণা চলাকালীন গবেষকরা প্রায় ২০৪ টি দেশে ১৯৯০ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে ১৫ থেকে ৯৫ বছর এবং তার বেশি বয়সী পুরুষ আর মহিলাদের নানান ডেটা সংগ্রহ করেছে। যার ফলে দেখা গিয়েছে, অ্যালকোহল সেবনের কারণে ক্যান্সার সহ প্রায় ২৩ টি স্বাস্থ্য সমস্যার ঝুঁকি দেখা দিতে পারে। যাদের বয়স ৪০ বছরের বেশি তারা সামান্য পরিমাণে অ্যালকোহল সেবন করলে উন্নত স্বাস্থ্যের ফলাফল পেতে পারেন। তবে এই সেক্ষেত্রে সর্বদা বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories