Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কী কারণে বিজেপির তুরুপের তাস জগদীপ ধনখড়, কেন তাঁকে করা হল উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী?

।। প্রথম কলকাতা।।

গতকাল সন্ধ্যায় এনডিএর উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের নাম ঘোষণা করেছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। বিজেপির সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত বিশেষ বৈঠকে যোগদান করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং, নীতিন গড়করি প্রমুখরা। যে বৈঠকে উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপালের নাম চূড়ান্ত করা হয়। তবে, উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে যে কয়েকজনের নাম ভেসে আসছিল, সেখানে কিন্তু জগদীপ ধনখড় ছিলেন না। এখন প্রশ্ন, তাঁকেই কেন উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে বেছে নিল বিজেপি?

প্রসঙ্গত, গতকাল উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে জগদীপ ধনখড়ের নাম ঘোষণা করতে গিয়ে তাঁকে কৃষকপুত্র ও জনগণের রাজ্যপাল হিসেবে সম্বোধিত করেছেন জেপি নাড্ডা। অর্থাৎ, তাঁর দুটি পরিচয় এখানে গুরুত্বপূর্ণ। প্রথমত কৃষক পুত্র, জগদীপ ধনখড় হলেন জাঠ কৃষক পরিবারের সন্তান। জাঠেরা বিজেপির একটি বিশেষ ভোট ব্যাংক ছিল। কিন্তু বিতর্কিত কৃষি আইন পাশের পর জাঠেদের একটা বিরাট অংশ সরে গেছে। উত্তরপ্রদেশে অখিলেশ যাদবের আসন সংখ্যা বৃদ্ধির পেছনে জাঠেদের একটা ভূমিকা ছিল। তাই এবার জাঠেদের ক্ষোভ প্রশমনে তাদের ভূমিপুত্রকে বড়সড় পদে এনে চমক দিতে চলেছে বিজেপি। কারণ উত্তর প্রদেশ, দিল্লি, হরিয়ানা, পাঞ্জাবের মতো রাজ্যে জাঠেরা বিজেপির বড় ভোট ব্যাংক।

আবার জনগণের রাজ্যপাল হিসেবেও জগদীপ ধনখড়কে সম্বোধন করেছেন নাড্ডা। এককথায় শাসক দলের বিরুদ্ধে যেভাবে নিরন্তর লড়াই করে বিরোধীদের ভরসার স্থল হতে পেরেছেন জগদীপ ধনখড়। সেক্ষেত্রে তাঁকে জনগণের রাজ্যপাল হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা করবে বিজেপি। যার দ্বারা বিজেপি বোঝানোর চেষ্টা করতে পারে, ভালো কাজ করলে ভালো পুরস্কার পাওয়া যায়। আবার, তাঁকে উপরাষ্ট্রপতির পদে এনে বঙ্গ বিজেপিকেও কিছুটা সুবিধা করে দিতে পারে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

পরবর্তী বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, যা হলো সংবিধান সম্পর্কে অগাধ জ্ঞান। রাজনীতিতে নামার আগে আইনজীবী হিসেবে তিনি প্রতিষ্ঠিত ছিলেন। সংবিধান সম্পর্কে জগদীপ ধনখড়ের যেমন অগাধ জ্ঞান আছে, তেমনি হিন্দি, ইংরেজি দুটি ভাষাতেই তাঁর ভালো রকম দখল। সে কারণে তাঁকে গুরুত্বপূর্ণ পদে আনার সিদ্ধান্ত বিজেপির। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেছেন, জগদীপ ধনখড় শিক্ষিত মানুষ, আইন জানেন, যোগ্যতা রয়েছে।

আবার, জগদীপ ধনখড় হলেন রাজস্থানের মানুষ। আগামী বছর রাজস্থানে রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। তাই বিজেপির এই পদক্ষেপ রাজস্থানের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে বড় রকম সুবিধা করে দিতে পারে বলেও অভিমত বিশেষজ্ঞদের।

অর্থাৎ, একাধিক কারণের জন্যই পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী করেছে বিজেপি যা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। এ প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য জানান, “অত্যন্ত আনন্দের খবর। একজন ব্যক্তি সংসদীয় ব্যবস্থার মধ্যে থেকে, যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোর মধ্যে থেকে তিনি যেভাবে পশ্চিমবঙ্গের মানুষের স্বার্থ রক্ষা করেছেন , তাঁদের গণতান্ত্রিক অধিকারকে সুরক্ষিত রেখেছেন। সাংবিধানিক অধিকার যাতে লঙ্ঘিত না হয় তার স্বতন্ত্র প্রহরী হিসেবে তিনি যেভাবে কাজ করে গেছেন তাঁর সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতার মধ্যে থেকে তা স্বীকার করতেই হয়। সংবিধানের রক্ষাকর্তা হিসেবে তাঁর যে ভূমিকা বাংলার রাজনীতির ইতিহাসে তাঁর নাম লেখা থাকবে। গণতন্ত্রপ্রিয় অত্যাচারিত মানুষের কাছে জগদীপ ধনখড়ের নাম অন্তরের অন্তস্থলে মধুর স্মৃতি হয়ে থাকবে।”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories