Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Purba Bardhaman: লাইসেন্স ছাড়াই বিকোচ্ছে মদ? বর্ধমানের বিষমদ কাণ্ডে প্রশ্নের মুখে আবগারি দফতর

।। প্রথম কলকাতা।।

বর্তমানে বর্ধমান জেলার বিষমদ কাণ্ড বারবার সংবাদ শিরোনামে উঠে আসছে । কারণ অত্যন্ত চাঞ্চল্যকর ভাবে প্রথম দিনে চারজন এবং দ্বিতীয় দিনের দুজন এই মদের বিষক্রিয়ার কারণে প্রাণ হারিয়েছেন। প্রাথমিক তদন্তে জানতে পারা গিয়েছে যে, এই নিহত বা গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তিরা যে সমস্ত জায়গা থেকে মদ কিনেছিলেন তার কোনটি লাইসেন্স প্রাপ্ত দোকান নয়। খাবারের দোকানে বিক্রি হচ্ছে মদ। আর সেই মদ পান করার ফলেই মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন অনেকে আর গতকালকের পর থেকে সেই লড়াই শেষ করেছেন ৬ জন ।

এইমতো পরিস্থিতিতে বর্তমানে একাধিক প্রশ্ন উঠছে আবগারি ফতরের ভূমিকা নিয়ে। এইভাবে শহরের বুকে একাধিক জায়গায় বেআইনিভাবে মদ বিক্রি করা হচ্ছে। খাবারের হোটেলে পর্যন্ত মিলছে দেশি মদ। বিকোচ্ছেও দেদার কিন্তু তা সত্ত্বেও কোনরকম হেলদোল নেই পুলিশের। এই ধরনের গাফিলতি নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে প্রশাসনকে। জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যে লক্ষ্মীপুর মাঠ এবং কলেজ মোড় সংলগ্ন এলাকার দুটি দোকান থেকে যারা মদ কিনে পান করেছিলেন তাঁরা প্রত্যেকেই বর্তমানে অসুস্থ।

তাদের মধ্যে কয়েকজন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি এবং কয়েকজনকে বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে রাখা হয়েছে । গতকাল এই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল চারজনের আর আজ বিষ মদ কাণ্ডে মৃত্যু হয় আরও দুজনের।শনিবার ভবানীপ্রসাদ সাঁই এবং শম্ভু শর্মা নামে দুজনের মৃত্যু হয় বিষক্রিয়ার কারণে । ভবানীপ্রসাদ সাঁই সরাইটিকরের নিবেদিতা পল্লীর বাসিন্দা। তিনি বৃহস্পতিবার তাঁর এলাকার একটি দোকান থেকে মদ কিনেছিলেন আর সেই মদ পান করার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন । সারাদিন বমি হয় তাঁর অবশেষে তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কিন্তু চিকিৎসকরা জানান, মৃত্যু হয়েছে তাঁর। অন্যদিকে শম্ভু শর্মা বর্ধমান কেশবগঞ্জ চটির বাসিন্দা। তিনিও বৃহস্পতিবার একটি দোকান থেকে বেআইনি মদ কিনেছিলেন। তা খাওয়ার পর অসুস্থ বোধ করেন এবং শুক্রবার দুপুরবেলায় তাকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ তাঁরও মৃত্যু হয়। মৃতদেহগুলিকে বর্তমানে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে বলে খবর পুলিশ সূত্রে। আপাতত বেআইনি মদের দোকানগুলিকে বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে বর্ধমান জেলা পুলিশ প্রশাসন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories