Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Hanskhali Rape Case: হাঁসখালি গণধর্ষণ কাণ্ডে CBI এর চার্জশিট, উল্লেখ প্রতিবেশীর নাম

।। প্রথম কলকাতা।।

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে নদিয়ার হাঁসখালিতে এক নাবালিকাকে গণধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। শুধু তাই নয় ধর্ষিতা ওই নাবালিকার মৃত্যুর পর তাকে তড়িঘড়ি শ্মশানে নিয়ে গিয়ে দাহ করার অভিযোগ ওঠে ধৃতদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত হিসেবে যার নাম জড়ায় সে স্থানীয় প্রভাবশালী তৃণমূল নেতার ছেলে। অবশেষে ৯০ দিনের মাথায় হাঁসখালি ধর্ষণকাণ্ডের চার্টশিট জমা দিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। সেই চার্জশিটে মোট নয়জনের নাম রয়েছে। তাঁর মধ্যে ছয় জনকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই।

এমনকি চার্জশিটে উল্লেখ রয়েছে ওই নির্যাতিতা নাবালিকার এক প্রতিবেশীর নাম।এই ঘটনার মূল অভিযুক্ত ছিল ব্রজ গোয়ালি ।এছাড়াও তাঁর সঙ্গে ছিল প্রভাকর পোদ্দার, রঞ্জিত মল্লিক, আকাশ বড়াই ,দীপ্ত গোয়ালি ,সমরেন্দ্র গোয়ালি ,পীযুষকান্তি ভক্ত এছাড়াও আরও এক নাবালক । এদের মধ্যে ব্রজসহ মোট ছয় জনকে আপাতত সিবিআই গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও চার্জশিটে নাম থাকা অংশুমান বাগচীকে এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়নি। জানা যায় ধর্ষণের ঘটনায় এসে যুক্ত না থাকলেও যখন ওই নির্যাতিতা নাবালিকার মৃতদেহ পোড়ানোর জন্য শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল সেই সময় সেখানে উপস্থিত ছিল সে।

এই ধর্ষণ কাণ্ডে পকসো সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে বলে খবর। ঘটনাটি ঘটেছিল ব্রজ গোয়ালির জন্মদিনের অনুষ্ঠানে। সেখানে এই নাবালিকাকে ডাকা হয়েছিল আর তারপর গণধর্ষণ করা হয় তাকে। অসুস্থ হয়ে পড়লে ওই নাবালিকাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হয়। কিন্তু বাইরের কোন হাসপাতাল কিংবা চিকিৎসকের কাছে তাকে নিয়ে যেতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ ওঠে । ওই দিন রাতে নির্যাতিতার বাড়ি ঘিরে রাখে অভিযুক্তরা ।

তাঁর পরিবারের সদস্যদেরকে হুমকি দেয় বলেও অভিযোগ । অবশেষে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হয় ওই নাবালিকার। তারপর অভিযুক্তরায় তড়িঘড়ি নাবালিকার দেহ নিয়ে গিয়ে শ্মশানে দাহ করে এবং প্রমাণ লোপাটের চেষ্টায় পোড়া ছাই পর্যন্ত ধুয়ে পরিষ্কার করে দেয় সেখান থেকে। এই ঘটনা তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে দেওয়া হয়। আর এবার তিন মাসের মাথায় রানাঘাট আদালতে এই ঘটনার চার্টশিট জমা দিল তদন্তকারী আধিকারিকরা।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories