Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মাসির বাড়ি থেকে ঘরে ফিরছেন জগন্নাথ ! উল্টো রথে শ্রীধামে চলছে জোর প্রস্তুতি

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

মাসির বাড়ি থেকে ঘুরে এবার বাড়ি ফিরছেন জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রা। আষাঢ় মাসের শুক্লপক্ষের দ্বিতীয়া তিথিতে তিনজন রথে করে গিয়েছিলেন মাসির বাড়ি অর্থাৎ গুন্ডিচা মন্দিরে। গত ১ জুলাই হয়েছিল রথযাত্রা। ৯ই জুলাই শনিবার মাসির বাড়ি থেকে তাঁরা ফিরছেন শ্রীধামে। সেই নিয়ে রীতিমত সমারোহের সঙ্গে প্রস্তুতি চলছে পুরীর মন্দিরে।পুরীর মন্দিরে জগন্নাথের ভোগ তৈরির রান্নাঘর নিয়ে কম অলৌকিক কাহিনী নেই। এর সঙ্গে জুড়ে রয়েছে কর্মাবাঈয়ের কাহিনী ।

যিনি রোজ জগন্নাথকে পুত্রস্নেহে স্নান না সেরে সকাল সকাল ভোগ নিবেদন করতেন। পরবর্তীকালে এক সন্ন্যাসীর কথায় স্নান করে স্নান সেরে ভোগ রান্না করতে গিয়ে প্রচুর দেরি করে ফেলেন। অপরদিকে খিদেয় কষ্ট পান জগন্নাথ। পুরীর মন্দিরের পুরোহিতরা এই বিষয়টি জানতে পেরে রাগারাগি করেন। তারপর থেকে কর্মাবাঈ স্নান না করেই আগে জগন্নাথ দেবের জন্য ভোগ রান্না করতেন। এখনো পর্যন্ত পুরীর মন্দিরে সকালে এই ভোগ রান্না করা হয় , যাকে বলা হয় কর্মাবাঈয়ের ভোগ।জগন্নাথ দেবের জন্য প্রতিদিন ভোগ রান্না হয়, প্রায় ১০০ টির বেশি পদের। তার মধ্যে আছে একটি পাক্কা আর একটি সুক্কা।

পাক্কা বলতে বোঝায় যে খাবারগুলি সিদ্ধ করা হয়। তার মধ্যে থাকে সমস্ত রকমের সবজি, খিচুড়ি প্রভৃতি। অপরদিকে সুক্কা বলতে বোঝায় শুকনো খাবার । সেই তালিকায় থাকে বিভিন্ন ধরনের পিঠে, মিষ্টি ,বিস্কিট প্রভৃতি। শোনা যায়, এই রান্নাঘরে তৈরি করা ভোগ কোনদিনও পরিমাণে বেশি হয় না, আবার কোনদিনও পরিমাণে কম পড়ে না । কোনদিন যদি পুরীর মন্দিরে সংখ্যায় বেশি পরিমাণে ভক্তরা আসেন সে ক্ষেত্রে কেউ আজ পর্যন্ত অভুক্ত হয়ে ফিরে যাননি।

প্রায় এক হাজার জনের বেশি সেবক এই রান্নাঘরে কাজ করেন।৯ জুলাই শুক্ল একাদশীতে উল্টো রথকে বলা হয় বহুদা যাত্রা। ১০ জুলাই হবে সুনাবেশ যাত্রা । এই দিন রাজকীয় বেশে সেজে ওঠবেন জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রা। ১১ জুলাই আধার পানা । এই দিন দেব-দেবীদের উদ্দেশ্যে দুধ, চিনি এবং শুকনো ফল দিয়ে বিশেষ পানীয় নিবেদন করা হবে। ১২ জুলাই হবে নিলাদ্রী বিজে যাত্রা । এই দিনটিকে অত্যন্ত শুভ দিন বলে মনে করা হয়।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথ

Categories