Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বেলপাহাড়িতে হুল দিবস উদযাপন, সভা মঞ্চ থেকে মমতা সরকারকে বিঁধলেন শুভেন্দু

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

৩০ শে জুন অর্থাৎ হুল দিবস সাঁওতাল সম্প্রদায়ের মানুষের জন্য গৌরবের দিন। ১৮৫৫ সালের ৩০ শে জুন এই সাঁওতাল বিদ্রোহ শুরু হয়েছিল। আর সেই বিদ্রোহ শেষ হয়েছিল ১৮৫৬ সালের নভেম্বর মাসে। সাঁওতাল বিদ্রোহের কথা উঠলেই যে নেতৃত্বদের নাম উঠে আসে তাঁরা হলেন সিধু , কানহো, চাঁদ , ভৈরব প্রমুখ। এই সাঁওতাল বিদ্রোহ রীতিমত ব্রিটিশ সরকারের মসনদ কাঁপিয়ে দিয়েছিল। প্রত্যেক বছরই এই দিনটিকে হুল দিবস হিসেবে উদযাপন করে থাকেন সাঁওতাল সম্প্রদায়ের মানুষ। আর চলতি বছরে হুল দিবসে সেই আদিবাসিন্দাদের কাছে গিয়ে উপস্থিত হলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

বৃহস্পতিবার তিনি বেলপাহাড়িতে হুল দিবস উদযাপনের একটি অনুষ্ঠানে এসে উপস্থিত হন । সেখানে সাঁওতাল সম্প্রদায়ের মানুষের বীরত্বের কথা তুলে ধরেন তিনি । সেই সমস্ত সাঁওতাল নেতা যারা সাঁওতাল বিদ্রোহকে নেতৃত্ব দিয়েছিল তাদের শ্রদ্ধা জানান, সন্মান জানান ওই সাঁওতাল বিদ্রোহের বীর যোদ্ধাদের। এদিনের সভামঞ্চে তিনি বলেন ,এখনও পর্যন্ত রাজ্যে সাঁওতালি ভাষা, সাঁওতালি সংস্কৃতিকে তেমনভাবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। এই সম্প্রদায়কে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য বিশেষ কিছু চিন্তাভাবনা নেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কিংবা রাজ্য সরকারের। এখনও পর্যন্ত কোথাও তাঁরা কয়েক ধাপ পিছিয়ে রয়েছেন। আর যদি একমাত্র তাদের কথা কেউ ভেবে থাকে তাহলে তা হল ভারতীয় জনতা পার্টি।

তিনি বলেন, এই আদি জনজাতির জন্যে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সবসময়ই যত্নবান। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে সমস্ত রাজ্যের যে জেলাগুলিতে আদি সম্প্রদায়ের বসবাস রয়েছে সেখানে ৪০০০ করে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য থাকা-খাওয়ার স্কুলসহ অন্যান্য বিষয়ের প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য একলব্য রেসিডেন্সিয়াল স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে গোটা ভারতবর্ষে। চলতি অর্থবর্ষে তা উল্লেখ পর্যন্ত করা হয়েছে বলে জানালেন বিরোধী দলনেতা । কিন্তু কেন্দ্র সরকারের এই উদ্যোগ পশ্চিমবঙ্গের কোন জেলাতে এসে পৌঁছাবে না। কারণ হিসেবে তিনি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর এই বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব না দেওয়াকেই জানিয়েছেন।

এমনকি তিনি অভিযোগ করেন যে , সাঁওতালি ভাষা এবং সংস্কৃতিকে কখনও রাজ্য সরকারের তরফ থেকে মর্যাদা দেওয়া হয়নি । যদি কেউ মর্যাদা দিয়ে থাকে তাহলে তা ভারতীয় জনতা পার্টি । এছাড়াও একাধিক বিষয়ে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে মন্তব্য করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই সভা মঞ্চে তিনি পুলিশ প্রশাসনকেও একহাত নিতে ছাড়েন নি। পদ উল্লেখ করে জেলা পুলিশ আধিকারিকদের উদ্দেশ্যে বার্তা দেন তিনি। কোনভাবেই তাকে আটকানো সম্ভব নয় বলে জানান বিরোধী দলনেতা।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories